ইসলামপুর

তৃণমূল ও বিজেপির সংঘর্ষ চোপড়ায়, আক্রান্ত প্রার্থী,দলীয় কার্যালয় ভাঙচুর তৃণমূলের

চোপড়ায় বিজেপি তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে সংঘর্ষ। বিজেপি প্রার্থীর গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ৷ এদিকে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে।

 

Bengal Live চোপড়াঃ নির্বাচনী প্রচার নিয়ে বিজেপি তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে উঠল চোপড়া বিধানসভা এলাকা। সংঘর্ষে আহত দুপক্ষের একাধিক বলে দাবি করা হয়েছে। চোপড়া বিধানসভার বিজেপি প্রার্থী শাহিন আখতারের গাড়ি ভাঙচুরের পাশাপাশি গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। পালটা চোপড়ার তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিস ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। দুই পক্ষের গন্ডগোলে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে চোপড়া থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নামানো হয়েছে র‍্যাফ ও কেন্দ্রীয় বাহিনীকেও। দুপক্ষই একে অপরের বিরুদ্ধে চোপড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করবে বলে জানিয়েছে।

আগামী ২২ এপ্রিল চোপড়া বিধানসভার ভোট। শেষ মুহূর্তের প্রচারে ঝাঁপিয়ে পড়েছে বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস। চোপড়া গ্রামপঞ্চায়েতের আড়ালি গ্রামে শনিবার দুপুরে প্রচারে যান বিজেপি প্রার্থী শাহিন আখতার। অভিযোগ, সেইসময় তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হামিদুল রহমানের নেতৃত্বে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা বিজেপির মিছিলে হামলা চালায়। গুলিও চালানো হয় বলে অভিযোগ বিজেপি প্রার্থী শাহিন আখতারের। ভাঙচুর করা হয় শাহিন আখতারের গাড়িও। বিজেপি প্রার্থী শাহিন আখতার এও দাবি করেছেন, শুধু বিজেপি কর্মী সমর্থক নয়, তৃণমূলের সন্ত্রাস থেকে আম আদমীও বাদ পড়েনি। সাত আটজন বিজেপি কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি বিজেপি প্রার্থীর।

অপরদিকে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা চোপড়ার তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিসে ঢুকে ভাঙচুর চালিয়েছে বলে অভিযোগ চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ আজাহারউদ্দিন । তাঁর অভিযোগ বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁদের কর্মীদের উপরে হামলা চালিয়েছে। হামলায় বেশ কয়েকজন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী আহত হয়েছেন বলে দাবি তৃণমূল নেতা মহম্মদ আজাহারউদ্দিনের। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে চোপড়ার আড়ালি গ্রামে। ঘটনাস্থলে ছুটে আসে চোপড়া থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কেন্দ্রীয় বাহিনীকেও নামানো হয়।

Related News

Leave a Reply

Back to top button