লাইফ স্টাইল

মাথায় টাক ? চুল পড়া নিয়ে চিন্তিত ? ঘরোয়া টোটকায় টাক সারান

চুলের বাহারেই তো পাখা মেলে রূপের বাহার। কিন্তু সেই চুল যদি ঝরতে শুরু করে ? যদি এমন হয়, হাতে টাকা নেই তবু মাথায় টাক ? তবে কী করবেন ? চিন্তা করবেন ন। সামান্য টোটকা ও কিছু খাদ্যাভ্যাস শুরু করে দেখতে পারেন। ফিরতে পারে সৌন্দর্য।

 

Bengal Live লাইফ স্টাইলঃ “চুল পড়া কোনও রোগই নয়, রোগের উপসর্গ মাত্র” — টিভিতে বিশেষ একটি তেলের বিজ্ঞাপনে প্রচারিত এই ঘোষণা আর তেমন শোনা যায় না। তবে রোগ হোক বা উপসর্গ – চুল পড়ার সমস্যা কিন্তু রয়েই গিয়েছে। হালের মাসী-পিসিরাও শোকে মুহ্যমান হয়ে বলে থাকেন, তাঁদের চুল পড়ে যাচ্ছে। কিংবা টাক নিয়ে চিন্তিত পুরুষের সংখ্যাও নেহাত কম নয়। এখন কলেজের চৌকাঠ পার হতে না হতেই অনেকের “টেকো” নাম পড়ে যায় বন্ধু মহলে। মাথায় চুল গজাতে নানাজনে নানারকম তেল ও বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রোডাক্ট ব্যাবহার করতে শুরু করেন। কিন্তু অনেক সময়েই এর ফল হয় হিতে বিপরীত।

আসলে চুল পড়ে যাওয়ার পেছনে কিছু কারণ থাকে। সেগুলোকে জানতে চেষ্টা করুন। কারণ জানা থাকলে অনেক সমস্যারই সমাধান খুব সহজে বের করে নেওয়া যায়।

পুরুষদের চুল পড়ে যাওয়া অনেকটা জিনগত কারণে হয়ে থাকে। তবে মহিলাদের বিভিন্ন কারণে এই সমস্যা তৈরি হয়। যেমন খারাপ ডায়েট, বদহজম, কম মাত্রায় চুলের যত্ন ইত্যাদি। তবে বাজারে যে সমস্ত ব্যাবসায়িক কোম্পানির তেল পাওয়া যায় তাদের মধ্যে অনেক রাসায়নিক পদার্থ থাকে। যেগুলো আমরা না জেনে ব্যাবহার করি এবং নিজেরাই বিপদ ডোকে আনি। তবে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতিতে চুল পড়ার সমাধান করা যেতে পারে। চলুন সেরকম কিছু পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করা যাক।

ওয়ান পট প্রণ বিরিয়ানিঃ জিভে জল আনবেই অতিথির, জেনে নিন রন্ধন প্রণালী

চুল পড়া কমাতে ডায়েট বড় ভূমিকা পালন করে। ভিটামিন এ, সি, ডি, ই, প্রোটিন, জিঙ্ক এবং আয়রন চুলের জন্য অত্যন্ত পুষ্টিকর ও স্বাস্থ্যকর খাদ্য। এই পুষ্টিগুলি চুলকে শক্তিশালী, চকচকে করে এবং বিকাশের উন্নতি করে। পুষ্টিবিদরা তাই চুলের স্বাস্থ্য বৃদ্ধির জন্য আটটি খাবারের বিষয়ে জানিয়েছেন, যা চুল পড়া কমাতে সহায়তা করতে পারে,

মাছঃ মাছ চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। মাছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। যা চুল পড়া রোধ করতে এবং চুলের ঘনত্ব বাড়াতে সহায়তা করে।

ফুলকপিঃ ফুলকপিতে ভিটামিন এ, সোডিয়াম, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, দস্তা এবং আয়রন থাকে। এগুলি সবই চুল পড়া কমানোর সেরা উপায়।

অ্যাভোকাডো: চুল পড়া কমাতে অ্যাভোকাডো খুব উন্নত ভূমিকা পালন করে। অ্যাভোকাডো ভিটামিন ই সমৃদ্ধ। এটি চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর এবং চুল পড়া রোধ করে।

TrueCaller-কে টক্কর দিতে Google আনছে Verified Calls

ওটস: ওটস শরীরের জন্য স্বাস্থ্যকর।
প্রতিদিন এক বাটি ওটস খাওয়া চুলের জন্য অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর। এটি চুল ঘন এবং শক্তিশালী করে তোলে এবং চুল পড়া রোধ করে। এটিতে জিংক, ওমেগা -সিক্স ফ্যাটি অ্যাসিড, আয়রন এবং পলিঅনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিডের মতো পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এটি চুলের বৃদ্ধিতে উৎসাহ দেয়।

আখরোটঃ আখরোটে অনেক রকম পুষ্টিগুণ রয়েছে, যা চুলের পক্ষে ভাল এবং চুলের বৃদ্ধিতে প্রচার করে। এটি ভিটামিন, দস্তা এবং প্রয়োজনীয় ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ। এতে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে যা চুল বৃদ্ধির জন্য উপকারী।

গাজরঃ চুল পড়া কমাতে গাজর খুব ভাল উপাদান। বিটা ক্যারোটিন একটি পুষ্টি যা চুল পড়া রোধে সহায়তা করে। গাজর বিটা ক্যারোটিন সমৃদ্ধ। গাজর ভিটামিন কে, সি, বি 6, বি 1, বি 3, বি 2, ফাইবার, পটাসিয়াম এবং ফসফরাস সমৃদ্ধ যা স্বাস্থ্যকর এবং শক্তিশালী চুলের জন্য প্রয়োজনীয়। প্রতিদিন গাজরের রস পান করা চুলের ক্ষতিকে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করতে পারে।

অবিশ্বাস্য অফার জিও ব্রডব্যাণ্ডের, আর মাত্র কিছু দিনের অপেক্ষা

Related News

Leave a Reply

Back to top button