পোর্টজিন

তৈমুর খানের পাঁচটি কবিতা

Bengal Live পোর্টজিনঃ পোর্টজিন কি? পোর্টজিন একটি অনলাইন ম্যাগাজিন। প্রতি সপ্তাহের রবিবার এটি বেঙ্গল লাইভের (bengallive.in) এর পোর্টজিন বিভাগ থেকে প্রকাশিত হয়।

bengallive portzine

 

জাগরণ সার

_____

ঘুমের ভেতরে কবে জাগরণ এসে গেছে

এত অশ্রুর ফুল ফুটেছে বিছানায়

কাকে দেখাব বেদনার তুলো উড়ে যাচ্ছে বাতাসে !

সূর্য সকাল পাখি সব আয়োজন মাঠ জুড়ে

পাহাড়ি রাস্তায় মেঘ নেমেছে নীল ফ্রকে

দ্রুত সভ্যতার যান সাপের ফণার মতো

এগিয়ে চলেছে কোথাও

কোনও উদ্দেশ্য জানি না আমি

কারা কোন্ চাবি দিয়ে বিকল্প দরজা খুলে

ভেতরে গেল

আমার শুধু জাগরণ সার

নবজাগরণ আজও এল না ঘরে !

ইচ্ছার ভেতর জন্ম আমার

_________

আড়ালে আড়ালে চলে যাচ্ছি

পরিচয় হল না, পায়ের জুতো ছিঁড়ে গেল

এক হাতে ছাতা, সামনে বৃষ্টি এল

বজ্রগর্ভ দিন, একটি বর্ষাকাল

কোথায় চলে যাচ্ছি, জানি না

রাস্তাগুলো তাকিয়ে আছে নিবিড় আহ্বানে

আমার সঙ্গে কোনও মানুষ নেই

হাওয়া যাচ্ছে সঙ্গে, শুধু হাওয়া

আমার আমি ভেঙে টুকরো টুকরো

পতাকা হয়ে উড়ছি আকাশে

এইতো জীবনের জয় ঘোষণা !

ইচ্ছার ভেতর জন্ম আমার, বারবার

যাহা বলি

____

এতসব আগুনের সর্প

আমি কথা বলতেই পারছি না

কোনওদিকে পালাতে পারছি না

সব রাস্তাগুলিতেই নেমে এসেছে কালো ছায়া

বৃক্ষগুলি রক্তবর্ণ

ধন্য ধন্য করছে সবাই

কারও কাছে গিয়ে দাঁড়াতে পারছি না

সবাই সর্পমানব আর সর্পমানবী

সভ্যতার গর্তে গর্তে আগুন জ্বেলে জেগে আছে

ধ্বনি প্রতিধ্বনিময় সময়

ঘণ্টা বাজিয়ে যাচ্ছে চৈতন্যে সবার

একটা কণ্টকিত বেদনার সান্নিধ্য ছাড়া

কোথাও প্রশ্রয় নেই পৃথিবীতে আমার

আলোর প্রতিমাকে

______

সামনে, যতদূর সামনে যাওয়া যায়

যতদূর আলোরা প্রতিমা বানিয়ে রাখে

ততদূর হেঁটে যাই একাকী

নৈঃশব্দ্যের তরবারি ঝলসে ওঠে

খান খান ভেঙে পড়ে আদিম হইহল্লারা

দুয়ার খুলে ডাক দেয় স্তব্ধতার হাসি

তখন একবারও পেছন ফিরে তাকাবার ইচ্ছা করে না

নিজেকে নতুন মনে হয়

কাগজের নৌকারা ভাসতে থাকে

আর হালকা নরম মেজাজ ভাসিয়ে দিই

আলোর প্রতিমাকে পদ্ম বলে ডাকতে ইচ্ছা করে

জলের কলে গান থেমে আছে হয়তো

____________

সম্ভব হচ্ছে না কিছু আর

দুপুর গড়াচ্ছে রোদ মেখে

পিপাসা লুকিয়ে রাখছে নিদান শরীর

বাতাবরণ নেই কোথাও তেমন তার

অংশত জানালাগুলি অনুসন্ধানের মুখ

ক্রমশ হারাচ্ছে বিবর্ণ উৎসবে

অযথা অযোগ্য সব বিজ্ঞাপনের কলরবে

ছুঁড়ে দিচ্ছে জৌলুস

ধাঁধার ছায়ায় এসে মূর্খ অভিলাষ

নিজেকেই পুড়িয়ে দিচ্ছে

উড়িয়ে দিচ্ছে সব মৃত হাঁস

জলের কলে গান থেমে আছে হয়তো

অযথা মিথ্যা প্রণয়ের চূর্ণ উল্লাস

Related News

Leave a Reply

Back to top button