রায়গঞ্জ

ডেপুটেশন দিতে গিয়ে বিজেপির হাতে মার খেল তৃণমূল, অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য রায়গঞ্জে

Join our WhatsApp group

বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েতে ডেপুটেশন দিতে গিয়েছিলেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা। মারধর দিয়ে তাঁদেরকে প্রধানের ঘর থেকে বের করে দেওয়া হয়। অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে।

ADVERTISEMENT

Bengal Live রায়গঞ্জঃ পঞ্চায়েতে ডেপুটেশন দিতে গিয়ে বিজেপির হাতে মার খেলেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা। এমনই অভিযোগ তুলে বিজেপি পরিচালিত ওই পঞ্চায়েতের গেটের সামনে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা। শুক্রবার ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় রায়গঞ্জ ব্লকের মহীপুর গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ে।

জানা গেছে, শুক্রবার বিজেপি পরিচালিত মহীপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে তৃণমূলের ডেপুটেশন কর্মসূচী ছিল। বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগ তুলে তৃণমূলের প্রতিনিধিরা এদিন প্রধানের কার্যালয়ে ডেপুটেশন দিতে ঢুকলে তাঁদেরকে মারধর করে বের করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। তৃণমূল প্রতিনিধিদের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। তৃণমূল-বিজেপি বিবাদের জেরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। ঘটনার প্রতিবাদে ও আক্রমণকারী বিজেপি আশ্রিত দুস্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে মহীপুর গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করেন এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা।

তৃণমূলের মহীপুর অঞ্চল সভাপতি দীপক মিত্র বলেন, আমরা আজকে পঞ্চায়েতের বিভিন্ন দুর্নীতির প্রতিবাদে প্রধানের কাছে ডেপুটেশন দিতে এসেছিলাম। শান্তিপূর্ণ ভাবে আমরা পাঁচ জন প্রধানের কার্যালয়ে ঢোকামাত্র বিজেপির কিছু দুষ্কৃতকারী গুণ্ডা আমাদেরকে মারধর করে বের করে দেয়। বিষয়টি আমরা পুলিশকে জানিয়েছি।
অন্যদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে প্রধান দীপ্তি বর্মন সরকার বলেন, “মারধরের কোনও ঘটনাই ঘটেনি। তৃণমূল মিথ্যা অভিযোগ করছে। ওরা পাঁচজনের বেশি মানুষ নিয়ম লঙ্ঘন করে ঢুকে পড়েছিলেন। তাই বাকিদের বেরিয়ে যেতে বলা হয়েছিল।

Tags

Related News

Leave a Reply

Back to top button
Close