রায়গঞ্জ

নির্বাচনের আগেই বোমা উদ্ধার, ঘটনাস্থলে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ

একদিকে যখন রায়গঞ্জ ও ইসলামপুর ডিসিআরসি থেকে দায়িত্ব বুঝে নিচ্ছেন ভোট কর্মীরা। বুথ কেন্দ্রের দিকে রওনা দিচ্ছেন তাঁরা, ঠিক সেই সময়েই রায়গঞ্জ থানার দক্ষিণ গোয়ালপাড়া এলাকা থেকে বোমা উদ্ধার হলো।

ষষ্ঠ দফার ভোটের আগে বৃষ্টির পূর্বাভাস উত্তরে, সম্ভাবনা উত্তর দিনাজপুরেও

Bengal Live রায়গঞ্জঃ নির্বাচনের মাত্র কয়েকঘন্টা আগে কালিয়াগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত রায়গঞ্জ থানার দক্ষিণ গোয়ালপাড়া এলাকা থেকে বেশ কয়েকটি বোমা উদ্ধার। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। বোমা উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বরুয়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। বিজেপি কর্মীর বাড়ির সামনে থেকে উদ্ধার হয়েছে বোমাগুলি বলে জানা গেছে।

রাত পোহালে ষষ্ঠ দফার ভোটগ্রহণ। তার আগে বুধবার কালিয়াগঞ্জ বিধানসভার অন্তর্গত রায়গঞ্জ থানার দক্ষিণ গোয়ালপাড়ার ২৬৬ নম্বর বুথ এলাকায় বিজেপি কর্মী বিকাশ সরকারের বাড়ির সামনে মিলল তিনটি তাজা বোমা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে স্থানীয়দের মধ্যে। ।

বাংলাদেশ স্পেশাল রেসিপিঃ দই রুই

বিজেপি কর্মী বিকাশ সরকারের স্ত্রী মল্লিকা সরকার বলেন, সকালবেলা বাড়ির নোংরা আবর্জনা ফেলতে এসে দেখতে পাই একটি বস্তার মধ্যে বোমা রাখা রয়েছে। মল্লিকা দেবীর অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস এলাকায় সন্ত্রাস ও ভয়ের বাতাবরণ তৈরি করতেই এখানে বোমাগুলো রেখে গিয়েছে। বিজেপি কর্মী মল্লিকা সরকার জানিয়েছেন আমরা ভয় পাইনা, আমরা এর মোকাবিলা করতে প্রস্তুত রয়েছি।

স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা  আজিমুল রহমান বলেন, এই ২৬৬ নম্বর বুথে ৯০ শতাংশ ভোটার তৃণমূল কংগ্রেসের। আমাদের এই এলাকায় বোমা রাখার কোনও কথাই না। বিজেপি পরিকল্পিতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়ে এখন তৃণমূল কংগ্রেসের নাম দিচ্ছে। বিজেপি এখন ট্র‍্যাডিশন অশান্তির বাতাবরণ তৈরি করে তৃণমূল কংগ্রেসের নাম দেওয়া। সারা রাজ্যজুড়ে বিজেপি এই ধরনের চক্রান্ত করে চলেছে।

কোভিড সংক্রমণ রুখতে কোন মাস্ক কতটা কার্যকর?

কে বা কারা নির্বাচনের আগে এই বোমা মজুত করেছিল তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ ভোটের আগের দিনে বোমা উদ্ধারে স্বাভাবিক ভাবেই আতঙ্ক ছড়িয়েচে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button