রাজ্যরায়গঞ্জ

সহকর্মীর হাতে গুলিবিদ্ধ দুই বিএসএফ জওয়ান, তদন্তে রায়গঞ্জ পুলিশ

Join our WhatsApp group

অঘটন মালদাখণ্ড বিওপিতে। ইনস্পেক্টর ও এক কনস্টেবল জওয়ানকে লক্ষ্য করে আচমকা গুলি ছুটে গেল কর্তব্যরত বিএসএফ জওয়ানের অস্ত্র থেকে। মাটিতে লুটিয়ে পড়ল দুটি দেহ।

ADVERTISEMENT

Bengal Live রায়গঞ্জঃ সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর ইনস্পেক্টর র‍্যাঙ্কের এক আধিকারিক ও এক কনস্টেবলকে গুলি করে খুন করার অভিযোগ উঠল বিএসএফ-এরই এক জওয়ানের বিরুদ্ধে৷ মৃত দুই বিএসএফ জওয়ানের নাম ইন্সপেক্টর মহিন্দর সিং ভাট্টি ও কনস্টেবল অনুজ কুমার। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য রায়গঞ্জ থানার ভারত-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সীমান্ত লাগোয়া মালদাখন্ড সীমান্ত চৌকিতে৷ ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ৷ অভিযুক্ত বিএসএফ জওয়ান উত্তম সূত্রধর আত্মসমর্পণ করেছেন বলে পুলিশ সূত্রে খবর৷

জানা গেছে, রায়গঞ্জ থানার ভাটোলের মালদাখন্ড সীমান্ত এলাকায় নৈশ প্রহরার কাজে নিযুক্ত ছিলেন উত্তম সূত্রেধর, মহিন্দর সিং ভাট্টি ও অনুজ কুমার। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার ভোর রাতে আচমকাই উত্তম সূত্রধর নিজের স্বয়ংক্রিয় রাইফেল থেকে গুলি চালাতে শুরু করে। ঘটনায় আধিকারিক সহ দুই বিএসএফ জওয়ানের মৃত্যু হয়৷ এদিকে ঘটনার পরেই মালদাখন্ড সীমান্ত চৌকির কমান্ডারের কাছে আত্মসমর্পণ করেন উত্তম সূত্রধর৷

রায়গঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, একটি দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। মালদাখন্ড বিওপিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে দুই বিএসএফ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় মূল অভিযুক্ত উত্তম সূত্রধর আত্মসমর্পণ করেছে। কী কারণে এই ঘটনা ঘটল তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে অভিযুক্তকে। ঘটনাস্থলে পুলিশ আধিকারিকরা পৌঁছে তদন্ত শুরু করেছে।

ঘটনার পর বিএসএফ জানিয়েছে, ১৪৬ নম্বর ব্যাটেলিয়নের কনস্টেবল উত্তম সূত্রধর ৩ অগাষ্ট মধ্যরাতে ভারত-বাংলা সীমান্তের মালদাখণ্ড বিওপিতে ডিউটি করছিলেন। ভোর সাড়ে তিনটে নাগাদ তিনি তাঁর সার্ভিস রাইফেল থেকে আচমকা দুই রাউন্ড শূন্যে গুলি চালান। গুলির শব্দ শুনে সেখানে ইনস্পেক্টর মহেন্দ্র সিং ভাট্টি ও কনস্টেবল অনুজ কুমার ছুটে যান। সেই সময় তাঁদের দুজনকে লক্ষ্য করে গুলি চালান কর্তব্যরত কনস্টেবল উত্তম সূত্রধর। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ইনস্পেক্টর মহেন্দ্র সিং ভাট্টি ও কনস্টেবল অনুজ কুমারের। এর পর কোম্পানি কমাণ্ডারের কাছে আত্মসমর্পণ করেন অভিযুক্ত কনস্টেবল উত্তম সূত্রধর। নিহত দুজনের সঙ্গে অভিযুক্ত উত্তম সূত্রধরের কোনও গোলমাল ছিল না। কেন তিনি তাঁদের লক্ষ্য করে গুলি চালালেন তা তদন্ত শেষেই স্পষ্ট হবে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button