রায়গঞ্জ

সংখ্যালঘু স্কলারশিপ নিয়ে আর্থিক প্রতারণা, গ্রেপ্তার দুই, পুলিশের উপর হামলা করণদিঘিতে

ধৃত দুই অভিযুক্তের মুক্তির দাবিতে রাতভর করণদিঘি থানার আইসিকে ঘেরাও করে রাখার অভিযোগ উঠেছে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে৷ পুলিশের উপর হামলা চালানো হয় বলেও অভিযোগ, গ্রেপ্তার ৯।

 

Bengal Live করণদিঘিঃ সংখ্যালঘু স্কলারশিপ নিয়ে আর্থিক তছরুপের অভিযোগে এক শিক্ষক ও এক অশিক্ষক কর্মীকে গ্রেপ্তার করল করণদিঘি থানার পুলিশ৷ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তোলপাড় করণদিঘি থানা এলাকা। ধৃত দুই অভিযুক্তকে মুক্তির দাবিতে প্রায় চার ঘন্টা অবরোধ ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক। দুষ্কৃতী তান্ডবে গুরুতর জখম করণদিঘি থানার আইসি সহ ৯ পুলিশ কর্মী। মঙ্গলবার রাতভর দুষ্কৃতী তান্ডবে উত্তাল পরিস্থিতি করণদিঘিতে। ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে এখনও পর্যন্ত ৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় যারা যুক্ত তাদের একজনকেও ছাড়া হবে না বলে জানিয়েছেন রায়গঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সংখ্যালঘু স্কলারশিপ নিয়ে আর্থিক তছরুপের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ তদন্তে নামলে সাবধান হাইস্কুলের প্যারাটিচার তহসান আলি ও রাঘবপুর হাইস্কুলের অশিক্ষক কর্মী সাকির আলির নাম পায় তদন্তকারীরা৷ জানা গেছে, পড়ুয়াদের বদলে নিজেদের ব্যাঙ্কের একাউন্ট নম্বর দিয়ে দীর্ঘদিন থেকে সংখ্যালঘু স্কলারশিপের টাকা তছরুপ করছিল ওই দুই। এই ঘটনা সামনে আসার পরেই পুলিশ অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেপ্তার করে৷

এইমস-এর সর্বভারতীয় পোস্ট গ্র্যাজুয়েট পরীক্ষায় নজরকাড়া সাফল্য মালদার মেয়ে ধৌলি ঝা’র

অভিযোগ, মঙ্গলবার রাতে একদল চড়াও হয় করণদিঘি থানায়। ধৃত দুইজনকে মুক্তির দাবিতে দীর্ঘক্ষণ ঘেরাও করে রাখে করণদিঘি থানার আইসিকে। এরপর ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে দুষ্কৃতীরা৷ প্রায় চার ঘন্টা জাতীয় সড়ক অবরোধ করে রাখার পরেও ধৃত দুইজনকে ছাড়া না হলে শেষে পুলিশের উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটা ছোঁড়া হয় বলেও অভিযোগ পুলিশের৷ এরপরেই পরিস্থিতি সামাল দিতে র‍্যাফ নামানো হয়৷ দুষ্কৃতী হামলায় করণদিঘি থানার আইসিও জখম হয়েছেন বলে জানা গেছে। এদিকে রাতেই ঘটনাস্থল থেকে নয়জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

পাচারের আগেই উদ্ধার হাজার খানেক টিয়াপাখি, রেল পুলিশের হাতে আটক ১ চোরাকারবারি

রায়গঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, সংখ্যালঘু স্কলারশিপের টাকা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগ পেয়ে পুলিশ তদন্তে নেমে দুই নোডাল অফিসারকে গ্রেপ্তার করে।  এরপরেই রাতে স্থানীয় কয়েকজন নেতা ও কিছু দুষ্কৃতী আইসিকে ঘেরাও করে রাখে। এরপর চার ঘন্টা জাতীয় সড়ক অবরোধ করে রাখে। রাত প্রায় সাড়ে তিনটা নাগাদ পুলিশের উপর হামলা চালানো হয়। আইসি সহ বেশ কয়েকজন জখম হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকেই নয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। আরও বাকি যারা আছে এই ঘটনার সাথে যুক্ত তাদের সকলকে গ্রেপ্তার করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার সুমিত কুমার।

Related News

Leave a Reply

Back to top button