Advertisement
রায়গঞ্জ

ইটাহারে তরুণ তুর্কী কানহাইয়া কুমারের সভায়  ভিড় তরুণদেরই, আওয়াজ উঠল এনআরসি-র বিরুদ্ধে

এনআরসি-র বিরুদ্ধে ইটাহারে সভা করলেন তরুণ বামপন্থী ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার। তরুণ প্রজন্মকে শপথ নিতে বললেন এনআরসির বিরুদ্ধে মুষ্ঠিবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার।

Bengal Live ইটাহারঃ তুখোর বাগ্মীতার কারণে ইতিমধ্যেই তরুণ প্রজন্মের একটা বড় অংশের কাছে আইকন হয়ে উঠেছেন কানহাইয়া কুমার। এদিন ইটাহারে চৌরাস্তার সভাতেও কানহাইয়া কুমারকে নিয়ে তরুন প্রজন্মের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মতন। এদিনের সভার জমায়েতেও সিংহভাগ মানুষই ছিল তরুন ও যুব সম্প্রদায়ের।

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন বিষয়ে আন্দোলন গড়ে তোলার পাশাপাশি এনআরসি-র বিরুদ্ধেও সোচ্চার হয়েছেন এই তরুণ বামপন্থী নেতা।

রবিবার বিকেলে ইটাহারের পথ সভাতেও তুমুল আওয়াজ তুললেন এনআরসিএ বিরুদ্ধে। কানহাইয়ার কথায় এদেশের কোনও মানুষই কাগজ পত্র দেখিয়ে নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমান করতে যাবেনা। সরকার যখন অভিযোগ তুলেছে, তখন সরকারই প্রমান করুক কারা এই দেশের নাগরিক নয়। কারণ এটাই স্বাভাবিক আইন। কানহাইয়ার এই মন্তব্যে হাততালির ঝড় ওঠে যুবকদের মাঝে।

নোট বন্দির প্রসঙ্গ টেনে কানহাইয়া বলেন, মোদী সরকারের নীতি দুই মুখো। নোট বন্দির উদ্দেশ্য হিসেবে যা যা বলেছিলেন তা একটাও বাস্তবায়িত হয়নি। কালো টাকাও ফেরৎ আসেনি আর সন্ত্রাসবাদও নির্মুল হয়নি। এন আরসি নিয়ে কানহাইয়ার দাবি, মানুষকে ভয় দেখিয়ে হয়রানি করে ভোট ব্যাঙ্কের রাজনীতি করতে চাইছে বিজেপি। দেশের কোথাও এনআরসি লাগু হবে না। ইংরেজরা চক্রান্ত করে এদেশের হিন্দু মুসলমানের মধ্যে যেমন বিভাজন সৃষ্টি করেছিল, আজ বিজেপিও ধর্মীয় বিভাজন করে রাজনীতি করছে।

এনআরসি বিরোধী এই যাত্রা শেষ হবে কলকাতায়। শিলিগুড়ি, দুই দিনাজপুর মালদা, মুর্শিদাবাদ, নদীয়া সহ সুন্দরবনের কাকদ্বীপ হয়ে আগামী ৯ ডিসেম্বর কলকাতার ধর্মতলায় বড় সমাবেশের মধ্য দিয়ে এই পাহাড় থেকে সাগর যাত্রার সমাপ্তি হবে। সেই সমাবেশেও প্রধান বক্তা হিসেবে থাকবেন কানহাইয়া কুমার।

Tags
Back to top button
Close