রায়গঞ্জ

গোটা গ্রামই যেন তাঁর পরিবার, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন আবদুলঘাটার ক্ষিতীশ বর্মণ

কার্যত লকডাউন পরিস্থিতিতে কর্মহীন বহু মানুষ। নিজ গ্রামের প্রায় শতাধিক পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিলেন গ্রামেরই এক বাসিন্দা।

 

Bengal Live রায়গঞ্জঃ বিপদের দিনে গ্রামের খেটে খাওয়া দিনমজুরদের পাশে দাঁড়ালেন গ্রামেরই এক বাসিন্দা। অতিমারীর সংকটময় পরিস্থিতিতে গ্রামের দুস্থ পরিবারদের দশ কেজি চাল ও পাঁচ কিলো আলু দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়ালেন রায়গঞ্জ ব্লকের আবদুলঘাটা গ্রামের বাসিন্দা ক্ষীতিশ বর্মন। মহামারীর এই ক্রান্তিকালে হতদরিদ্র দিনমজুর মানুষগুলির সাহায্যার্থে সকলকে সাধ্যমতো এগিয়ে আসার আহ্বান জানালেন তিনি। তাঁর এই উদ্যোগে খুশি গ্রামের মানুষ।

অতিমারী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রতিরোধে কড়া বিধিনিষেধের সময়সীমা বৃদ্ধি পেয়েছে রাজ্যে। কার্যত লকডাউন পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন বহু মানুষ। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সাধারণ মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করার উদ্যোগ নিলেও এখনও বহু মানুষের কাছেই পৌঁছানো সম্ভব হয়নি তাঁদের। এমতবস্থায় রায়গঞ্জ ব্লকের আবদুলঘাটা গ্রামের শতাধিক পরিবারকে ১০ কিলো চাল ও ৫ কিলো আলু দিয়ে সাহায্য করলেন গ্রামেরই বাসিন্দা পেশায় কাঠ ব্যবসায়ী ক্ষিতীশ বর্মণ।

গ্রামের এক বাসিন্দা লক্ষ্মী দেবশর্মা জানিয়েছেন, “লকডাউনে আমাদের কোনও কাজ নেই। কি করে খাব আমরা। এই দুঃসময়ে ক্ষীতিশ বাবুর খাদ্য সামগ্রী পেয়ে আমরা ভীষণভাবে উপকৃত হয়েছি।”

এই উদ্যোগ প্রসঙ্গে ক্ষিতীশ বাবু বলেন, “একজন সাধারণ মানুষ হয়ে গ্রামের অসহায় মানুষগুলির পাশে দাঁড়াতেই এই উদ্যোগ নিয়েছি। অতিমারী করোনার লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া দিনমজুর গ্রামবাসীদের হাতে এইটুকু পরিষেবা তুলে দিয়েছি যাতে অন্তত কয়েকটা দিন তাঁরা পেটপুরে খেতে পারেন।” তাঁর এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন গ্রামের তৃণমূল কংগ্রেসের পঞ্চায়েতের সদস্য অমল মন্ডল।

Related News

Leave a Reply

Back to top button