Advertisement
রায়গঞ্জ

তৃণমূলের চিন্তা বাড়িয়ে উত্তর দিনাজপুরেও জমি তৈরি করছে মিম

ইতিমধ্যেই জেলার নয়টি ব্লকে অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (মিম) একটি করে অর্গানাইজিং কমিটি তৈরি করেছে। মিমের জেলা আহ্বায়কের দাবি নতুন বছরের শুরুতেই পশ্চিমবঙ্গে অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন-এর সরকারি ভাবে রাজনৈতিক যাত্রা শুরু হবে।

Bengal Live রায়গঞ্জঃ তৃণমূলের চিন্তা বাড়িয়ে উত্তর দিনাজপুরেও জমি তৈরি করছে অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (মিম)। এখনও সরকারি ভাবে এই রাজ্যে শেকড় না পুঁতলেও উত্তর দিনাজপুরে সংগঠন তৈরির প্রক্রিয়া বেশ কিছুদিন থেকেই শুরু করেছে আসাদউদ্দিন ওয়াইসি-র দল মিম। মিম সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই জেলার নয়টি ব্লকেই একটি করে অর্গানাইজিং কমিটি তৈরি করা হয়েছে। নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিতে সম্প্রতি হেমতাবাদের একটি মাদ্রাসার পরিচালন সমিতির নির্বাচনে প্রার্থীও দিয়েছিল মিম। রাজনৈতিক ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ মনে করছে, সংখ্যালঘু অধ্যুষিত উত্তর দিনাজপুরে মিমের উত্থান হলে ভোট রাজনীতিতে ক্ষতির মুখে পড়তে পারে তৃণমূল।

কিছুদিন আগে কোচবিহার সফরে এসে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই নাম না করে এই রাজ্যে মিমের কর্মকান্ডের কথা প্রকাশ্যে নিয়ে আসেন। হায়দ্রাবাদের একটি দল এই রাজ্যে বিজেপির টাকায় কাজকর্ম করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বিজেপির তরফে এই অভিযোগ করে অবশ্য ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। টাকার বিনিময় বা বিজেপির সঙ্গে তাদের সম্পর্কের কথা অস্বীকার করলেও সারা রাজ্যের পাশাপাশি এই জেলাতেও যে মিমের রাজনৈতিক ভিত্তি তৈরির কাজকর্ম চলছে তা স্বীকার করেছেন মিমের উত্তর দিনাজপুর জেলা আহ্বায়ক মহম্মদ মোজাফফর আনোয়ার।

মিমের উত্তর দিনাজপুর জেলা আহ্বায়ক মোজাফফর আনোয়ার বলেন, গত ২০১৩ সাল থেকেই মিম এই জেলায় সংগঠন তৈরির কাজ চালাচ্ছে। উত্তর দিনাজপুরের ৯ টি ব্লকেই প্রাথমিক ভাবে কয়েকজনকে নিয়ে একটি করে অর্গানাইজিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। দলের অস্তিত্ব পরখ করতে হেমতাবাদের ভোগ্রাম মাদ্রাসার নির্বাচনে মিম সমর্থিত ৫ জন প্রার্থী দেওয়া হয়েছিল। তাতে কোনও প্রচার ছাড়া মানুষের সাড়াও পেয়েছি আমরা।”

মোজাফফর আনোয়ারের দাবি, নতুন বছরের শুরুতেই পশ্চিমবঙ্গে অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন-এর সরকারি ভাবে রাজনৈতিক যাত্রা শুরু হবে।

হেমতাবাদ ব্লক তৃণমূল সভাপতি প্রফুল্ল বর্মণ বলেন, মিমকে নিয়ে আমাদের চিন্তার কোনও কারণই নেই। শুধু এই জেলা নয়, পশ্চিমবঙ্গের কোথাও ওরা মাটি খুঁজে পাবে না। এই তো হেমতাবাদের একটি মাদ্রাসা পরিচালন সমিতির নির্বাচনে ওরা প্রার্থী দিয়েছিল। কিন্তু হালে পানি পায়নি। এই রাজ্যে ওরা বিজেপির সাহায্য নিয়ে একটা জায়গা করার চেষ্টা করছে। কিন্তু তা সফল হবে না।

Tags
Back to top button
Close