রায়গঞ্জ

রায়গঞ্জের যুবকের তৎপরতায় পাচারের হাত থেকে রক্ষা পেল অসমের নাবালিকা

রায়গঞ্জের যুবকের তৎপরতায় পাচারের হাত থেকে রক্ষা পেল অসমের নাবালিকা

Bengal Live রায়গঞ্জঃ সহযাত্রী এক সহৃদয় যুবকের উপস্থিত বুদ্ধিতে পাচারের হাত থেকে রক্ষা পেল অসমের এক নাবালিকা। শনিবার রাতে রায়গঞ্জ পুলিশের সহযোগিতায় ওই নাবালিকাকে তুলে দেওয়া হয় চাইল্ড লাইনের হাতে। চাইল্ড লাইনের পক্ষ থেকে ওই নাবালিকার বাড়ির সাথে যোগাযোগ করে তাকে তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার চেষ্টা চলছে। জানা গেছে, ওই কিশোরীর বাড়ি অসমের রঙ্গিয়া জেলার কুনাহার থানা এলাকায়। তার বাবা পেশায় ঠেলা চালক।

উদ্ধারকারী ওই যুবকের নাম শুভ্রদীপ ভৌমিক। তিনি রায়গঞ্জের মিলনপাড়ার বাসিন্দা। শুভ্রদীপের বিবরণে জানা গেছে, শনিবার আলিপুরদুয়ার থেকে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার একটি বাসে এক যুবকের সাথে ওঠে ওই কিশোরী। বাসটি কিষাণগঞ্জে এসে পৌঁছলে ওই কিশোরীর সঙ্গী যুবক সেখানে নেমে যায়। এরপর ডালখোলার কাছাকাছি জায়গায় এসে বাসের কন্ডাকটর ওই কিশোরীকে তার গন্তব্যের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করতেই সে কান্নায় ভেঙে পড়ে।

তাতেই সন্দেহ হয় ওই বাসেরই যাত্রী শুভ্রদীপ বাবুর। মেয়েটির সঙ্গে কথা বলে তিনি বুঝতে পারেন, সে কোনও পাচারকারীর খপ্পরে পড়েছে। এরপরেই সোজা রায়গঞ্জের এনবিএসটিসি ডিপোতে এসে সংস্থার কর্মীদের বিষয়টি জানান তিনি। ঘটনার কথা শুনে রায়গঞ্জ থানায় যোগাযোগ করেন সংস্থার কর্মী তথা আইএনটিটিইউসি নেতা কৌশিক দে। পুলিশের পরামর্শে যোগাযোগ করা হয় চাইল্ড লাইনের সাথে। খবর পেয়ে চাইল্ড লাইনের সদস্যরা এসে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে যান।

কৌশিক দে বলেন, মেয়েটি অসমীয়া ছাড়া অন্য কোনও ভাষায় কথা বলতে পারছে না। ফলে তার বয়ান আমরা স্পষ্ট ভাবে পুরোপুরি বুঝতেও পারছি না। তবে যেটুকু বোঝা যাচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে মেয়েটিকে পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। আমরা রায়গঞ্জ থানাকে জানিয়ে তাকে চাইল্ড লাইনের হাতে তুলে দিয়েছি।

উদ্ধারকারী যুবক শুভ্রদীপ ভৌমিক বলেন, এমন একটি কাজ করতে পেরে খুব ভালো লাগছে। আমি চাই মেয়েটি নিরাপদে তার পরিবারের কাছে পৌঁছে যাক। মেয়ে পাচারের মতো অপরাধ সমাজ থেকে দূর করতে হলে আমাদের প্রত্যেকটি মানুষের আরও সচেতন হওয়া প্রয়োজন।

Related News

Leave a Reply

Back to top button