রায়গঞ্জ

ছাত্রীদের সঙ্গে অশালীন আচরণ, শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানাচ্ছে স্কুল কর্তৃপক্ষ

Bengal Live রায়গঞ্জঃ মাঝরাতে ছাত্রীদের ভিডিও কল ও অশালীন আচরণ করার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় অভিযোগ জানানোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে রায়গঞ্জ কৈলাশচন্দ্র রাধারাণী বিদ্যাপীঠ কর্তৃপক্ষ। এদিকে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণের দাবিতে মঙ্গলবারও স্কুলে বিক্ষোভ দেখায় পড়ুয়ারা। এদিনও বেশ কয়েকজন ছাত্রী লিখিত ভাবে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এদিকে পুরো ঘটনাকে নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজাও।

সোমবার রায়গঞ্জ কৈলাশচন্দ্র রাধারাণী বিদ্যাপীঠের ভূগোলের শিক্ষক বাপী প্রামাণিকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের সাথে অশালীন আচরণ করার অভিযোগ ওঠে। মাঝরাতে ভিডিও কল সহ আপত্তিকর মেসেজ করার অভিযোগে সরব হয়েছিলেন ওই স্কুলেরই দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রীরা। একাধিক প্রাক্তন ছাত্রীও ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে একই অভিযোগে সরব হয়েছিলেন।

অভিযুক্ত শিক্ষককে স্কুল থেকে বহিষ্কার করার দাবি জানিয়ে সোমবারের পর মঙ্গলবার দিনও বিক্ষোভ দেখায় পড়ুয়ারা। ইতিমধ্যেই এই ঘটনা নিয়ে স্কুলে স্টাফ কাউন্সিলের বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে। সেখানে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করার পাশাপাশি যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়েও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এদিন ম্যানেজিং কমিটি ও বিশাখা কমিটির বৈঠক রয়েছে বলে জানা গেছে। প্রধান শিক্ষক উৎপল দত্ত জানান, বৈঠকের পর জেলা পরিদর্শক (মাধ্যমিক)-এর দপ্তরে বিষয়টি জানানো হবে। উৎপল বাবু আরও জানান, সোমবার দিনই রায়গঞ্জ থানার পুলিশ আধিকারিকরা স্কুলে এসে এই বিষয়ে বিশদে আলোচনা করেছেন।

আরও পড়ুনঃ মাঝরাতে ছাত্রীকে ভিডিও কল, অশ্লীল মন্তব্য, শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ ঘিরে তোলপাড় রায়গঞ্জ

ছাত্রীদের অভিযোগ পত্র রায়গঞ্জ থানায় পাঠানোর ব্যবস্থাও করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষক উৎপল দত্ত। এদিকে গতকালের পর এদিনও স্কুলে অনুপস্থিত অভিযুক্ত শিক্ষক বাপী প্রামাণিক। উৎপল বাবু বলেন, সোমবার দিনই পড়ুয়াদের বিক্ষোভের মাঝে অভিযুক্ত শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনও মতামত জানাননি।
আজ ওই শিক্ষকের স্ত্রী প্রধান শিক্ষকের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। সেই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বাপীবাবুকে চিকিৎসার জন্য কলকাতা নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

স্থানীয় কাউন্সিলর তথা স্কুল পরিচালিন কমিটির সদস্য প্রসেঞ্জিত সরকার জানিয়েছেন,“ওই শিক্ষক একজন সক্রিয় বিজেপি কর্মী। এর আগেও তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছিল। আমরা ওই শিক্ষকের উপযুক্ত শাস্তি চাই।’’

বিজেপি’র জেলা সভাপতি নির্মল দাম জানিয়েছেন,“ওই শিক্ষক স্কুল ও রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে শাসকদলের একাধিক দুর্নীতির ব্যাপারে সংগঠিত ভাবে সরব হয়েছিলেন। এর শাস্তি হিসেবেই তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়েছে।’’

স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা জানিয়েছে, ওই শিক্ষককে স্কুল থেকে বহিস্কার না করা পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে।

Tags

Leave a Reply

Back to top button
Close