Advertisement
রায়গঞ্জ

মূক, বধির, অনাথ বাদ গেল না কেউ, রায়গঞ্জে ভাইদের জন্য মঙ্গল কামনা বোনদের

রায়গঞ্জে মূক-বধির ও অনাথ ভাইদের ফোঁটা ফোটা দিল বোনরা। সূর্যোদয় হোম ও শিশু সদনে খুশির বাতাস কচিকাঁচাদের মনে।

Bengal Live রায়গঞ্জঃ অনাথ শিশুদের নিয়ে ভাই ফোঁটা পালন পাড়ার দিদি ও বোনেদের। শুধু ফোঁটা দেওয়াই নয়, নানা পদে ভুড়িভোজের ব্যবস্থাও ছিল অঙ্কিত, সোহম ও রাজাদের জন্য। অনাথ শিশুদের ফোঁটা দিতে পেরে যেমন খুশী এলাকার দিদিরা তেমনি দিদি ও বোনেদের থেকে ফোঁটা পেয়ে আনন্দিত রায়গঞ্জ শিশু সদনের অনাথ শিশুরা।

খেলাধুলার পাশাপাশি পড়াশুনা। হোমের চার দেওয়ালের মাঝেই সকাল থেকে রাত হয় এই শিশুদের। পরিজনদের থেকে দূরে সূর্যোদয় মূক ও বধির হোমই এখন তাঁদের ঠিকানা। উত্তর দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মঙ্গলবার সমাজ কল্যান দপ্তরের অধীনস্থ উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জের সূর্যোদয় মূক ও বধির আবাসিক হোমে পালিত হলো ভাই ফোঁটা।

এদিন সকালে হোমের আবাসিকরা নতুন পোশাক পড়ে মেতে উঠল এই উৎসবে। হোমের বোনেরা ও দিদিরা ভাইদের কপালে চন্দন, দই, কাজল, শিশিরের ফোঁটা দিয়ে ভ্রাতৃ দ্বিতীয়া উৎসব পালন করে।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের জনশিক্ষা দপ্তর নিয়ন্ত্রিত আবাসিক হোম “শিশু সদন”-এর আবাসিকরাও এদিন সামিল হয় ভাইফোঁটা উৎসবে। পরিবার নেই ওদের। তাই ঠিকানা শিশু সদন। এখন ওদের পরিবার ওরা নিজেরাই। ফলে ভাই ফোঁটার আয়োজন থেকেও ব্রাত্য ছোট ছোট শিশুরা। এই উৎসবের দিনে যেন ওই শিশুরাও সামিল হতে পারে, তাই শিশু সদনে ভাই ফোঁটার আয়োজন করা হয় এবছর। ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অভিজিৎ সাহা এই ভাই ফোঁটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

এদিন সকালে পাড়ার দিদি ও বোনেরা হাজির হন শিশু সদনে। ভাইদের কপালে ফোঁটা দেওয়ার পাশাপাশি মিস্টিমুখ করান তাঁরা। এরপর শুরু হয় ভূড়িভোজ। অনাথ ভাইদের ফোঁটা দিয়ে আপ্লুত কাবেরী, দেবলীনারা। রায়গঞ্জ পুরসভার কাউন্সিলর অভিজিৎ সাহা বলেন, এই ধরণের কাজ করতে পেরে আমরা নিজেদের গর্বিত বোধ করছি। প্রত্যেক বছরই এলাকার মেয়েদের দিয়ে রায়গঞ্জ শিশু সদনে ভাইফোঁটার আয়োজন করা হয়ে থাকে।

Tags
Back to top button
Close