রাজ্য

করোনার জেরে এবার বনভোজনেও নিষেধাজ্ঞা

করোনার কারণে পিকনিক নিষিদ্ধ গৌড় আদিনায়। মন খারাপের মাঝেই পুলিশের এই বিধিনিষেধকে সাধুবাদ জানিয়েছেন জেলাবাসী।

জলপাইগুড়িতে বন দপ্তরের অভিযান, প্রচুর চোরাই কাঠ সহ উদ্ধার হরিণের শিং

ADVERTISEMENT

Bengal Live মালদাঃ করোনার জেরে নিষিদ্ধ বনভোজন। বিশেষ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে পিকনিকে নিষেধাজ্ঞা জারি করল ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। শীতের মরসুমের ডিসেম্বর, জানুয়ারি মাসে বনভোজন করতে জেলার বিভিন্ন স্থানে ছুটে যাবেন বাসিন্দারা। জেলা সদর এবং জেলা জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বহু ঐতিহাসিক স্থাপত্য। যেমন গৌড়, আদিনা, পান্ডুয়া, আদিনা ডিয়ার পার্ক, সাগরদীঘি, পাতাল চন্ডী। এসব স্থানে পিকনিকের জন্য ভিড় করেন মালদা সহ জেলার বাইরের পর্যটকরা। কিন্তু এবার কোথাও পিকনিক করা যাবে না। পুলিশের এই বিধিনিষেধকে সাধুবাদ জানিয়েছে জেলাবাসী।

এই বিষয়ে ইংরেজবাজার থানার পুলিশের দাবি, করোনা আবহে দূরদূরান্ত থেকে মানুষ ভিড় করে এসে পিকনিকে অংশ নেন। ভিড়ের কারণে বাড়তে পারে করোনা সংক্রমণ। সেই কারণে ইংরেজবাজার থানা একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। এবছর করোনা কালে পিকনিক নিষিদ্ধ করা হয়েছে। মানুষকে সচেতন করতে বিভিন্ন জায়গায় টাঙ্গানো হয়েছে ব্যানার পোস্টার।

তুহিন কুমার চন্দের কলমে গল্প “দুধ”

জেলাবাসী সমীর ঘোষ জানান, জেলার অন্যতম টুরিস্ট স্পট গৌড়। প্রচুর মানুষ সেখানে পিকনিক করতে আসেন শীতের মরসুমে। এবছর করোনা আবহে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ পিকনিক করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে প্রশংসনীয় কাজ করেছে।

দূষণ প্রতিরোধ কমিটির জেলা সম্পাদক নারায়ন চন্দ্র সাহা জানান, করোনা পরিস্থিতিতে পিকনিকে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ। পুলিশের এই ভূমিকায় সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ হবে বলে আশা করছি।

বিনয় মজুমদার নিজের জীবনকেই করেছেন কবিতার বিষয় — নৃপেন্দ্রনাথ মহন্ত

ইংরেজবাজার বিধানসভার বিধায়ক নিহার রঞ্জন ঘোষ জানান, এর আগে কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে ঐতিহাসিক স্থলে বনভোজন নিষিদ্ধ করার বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল। এবছর করোনা আবহে সমস্ত অনুষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে। অন্যান্য অনুষ্ঠানের মত এবছর বনভোজনও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ যাতে না বাড়ে সেই কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
মানুষ বেঁচে থাকলে আগামী বছর আবার বনভোজন করতে পারবে। তাই মানুষকে সচেতন করার জন্য বনভোজন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button