রাজ্য

বন্যা পরিস্থিতি এখনও কাটেনি, করোনা আতঙ্ক নিয়েই জলবন্দি ৫০০ পরিবার

মালদায় মহানন্দার জল বাড়ছে৷ বন্যা পরিস্থিতি এখনও কাটেনি৷ পুরসভার একাধিক ওয়ার্ডের প্রায় ৫০০ পরিবার জলবন্দি। কিছু মানুষ বাড়ি ছেড়ে হাইস্কুলে আশ্রয় নিলেও করোনা আতঙ্কে গ্রাস করেছে তাঁদের।

Bengal Live মালদাঃ গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে প্লাবিত মালদা জেলার বেশ কিছু এলাকা।
ঘরবাড়ি জলে ডুবে যাওয়ার কারণে সরকারি স্কুলে থাকতে হচ্ছে তাঁদের। ভিড় করে থাকার কারণে করোনা সংক্রমণ হওয়ার আতঙ্ক রয়েছে বানভাসিদের মধ্যে। তাই মহানন্দা নদীর জলে ঘরবাড়ি ডুবে যাবার পরেও কোনরকমে সেই ঘরেই আশ্রয় নিয়ে রয়েছেন বহু বানভাসি।

পুজোর মরশুম চলে এসেছে। এই অবস্থায় মহানন্দা নদীর জলে প্লাবিত পুরাতন মালদা পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বেশ কিছু এলাকা। বাসিন্দাদের এখন দুর্বিষহ অবস্থা। বানভাসি মানুষদের অভিযোগ, এই সংকটময় পরিস্থিতির মধ্যে পুরসভা এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় কোনও সহযোগিতা পাওয়া যাচ্ছে না। মিলছেনা ত্রাণও। এক কোমর জলের মধ্যে কোনরকমে ঘরবন্দী হয়ে রয়েছেন তারা। কতদিন এই পরিস্থিতি চলবে তাও বুঝতে পারছেন না তারা। প্রশাসনের সহযোগিতা না মেলায় ওই ওয়ার্ডের অধিকাংশ বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে।

পুরাতন মালদা পুরসভার প্রশাসক কার্তিক ঘোষ জানিয়েছেন, মহানন্দা নদীর জল বেড়েছে। পুরসভা এলাকার ৮, ৯ এবং ২০ নম্বর ওয়ার্ডের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। প্রায় ৫০০ পরিবার জলবন্দি। পুরসভার পক্ষ থেকে জলবন্দি পরিবারের অনেককেই আশেপাশের স্কুলগুলিতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ত্রাণ সামগ্রী দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সোমবার সকালে পুরাতন মালদা পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মির্জাপুর, নিচুপাড়া এলাকায় কোথাও কোমর জল, আবার কোথাও এক হাঁটু জলে জলবন্দি রয়েছেন বহু মানুষ। কেউ কেউ নিজেদের ঘরবাড়ি ছেড়ে আশেপাশের স্কুলগুলিতে এবং রাস্তার ধারে খোলা আকাশের নিচে আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু অনেকেই নিজেদের বাড়ি ছেড়ে যেতে পারেননি। করোনা সংক্রমণের ভয়ে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button