রাজ্য

মানবাধিকার কমিশনের ভুয়ো আধিকারিকের পরিচয় দিয়ে প্রতারণা, উত্তরবঙ্গে গ্রেপ্তার আরও ১

মানবাধিকার কমিশনের ভুয়ো আধিকারিকের পরিচয় দিয়ে প্রতারণার অভিযোগে জলপাইগুড়ি থেকে গ্রেপ্তার এক। চাকরি দেওয়ার নাম করে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ।

 

ঝটপট বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন চটপট চিড়ের কাটলেট

Bengal Live জলপাইগুড়িঃ মানবাধিকার কমিশনের ভুয়ো আধিকারিকের পরিচয় দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার এক। জানা গিয়েছে, ধৃত যুবক মৈনাক চক্রবর্তী কোচবিহারের বাসিন্দা। তাকে শনিবার আটক করে মেটেলি থানার পুলিশ এবং রবিবার জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে তোলা হয়।

অভিযোগ, মেটেলি ব্লকের দক্ষিণ ধূপঝোরা এলাকার অপু সরকারের কাছ থেকে চাকরি দেওয়ার নাম করে ১ লক্ষ টাকা চায় ধৃত ওই ব্যক্তি। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত গত এক সপ্তাহ ধরে মূর্তির একটি বেসরকারি রিসর্টে ছিল। বিষয়টি জানতে পেরে গত শনিবার সন্ধ্যায় ওই রিসর্টে গিয়ে অভিযোগকারী অপু সহ কয়েকজন যুবক গিয়ে হাতেনাতে ধরে ফেলেন অভিযুক্তকে। ঘটনাটি জানাজানি হতেই ওই রিসোর্টে ভিড় জমান এলাকার বহু মানুষ, খবর দেওয়া হয় মেটেলি থানায়। এরপর পুলিশ এলে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়। পুলিশের সামনেই ওই যুবককে মারধরের চেষ্টা করা হলেও পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানা গিয়েছে।

গ্রেপ্তার বেঞ্জামিন হেমব্রম, একাধিক ধারায় মামলা রুজু করল রায়গঞ্জ পুলিশ

অভিযোগকারী অপু সরকার বলেন, ‘ওই যুবক নিজেকে মানবাধিকার কমিশনের অফিসার পরিচয় দিয়ে আমার কাছে সরকারি চাকরি দেওয়ার নামে টাকা চায়। রিসর্টের ম্যানেজার বিপ্লব রায় চৌধুরী জানিয়েছেন , ওই যুবক গত ১ সপ্তাহ ধরে রিসর্টে আছে। তার প্রায় ১৮ হাজার টাকা বিল বাকি আছে।

অভিযুক্তকে রবিবার আদালতে তোলা হলে তাকে আদালত ৩ দিনের পুলিশ রিমান্ড দিয়েছে। অভিযুক্ত মৈনাক চক্রবর্তীর দাবি, তিনি মানবাধিকার কমিশনের কর্মী হিসেবে কাজ করেন। এ বিষয়ে জলপাইগুড়ির পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

উত্তরবঙ্গের জন্য সতর্কবার্তা, ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস দিলো আবহাওয়া দপ্তর৷

Related News

Leave a Reply

Back to top button