রাজ্য

রাস্তার ধারে ১৪ দিন বিনা চিকিৎসায় পড়ে থাকলেন বৃদ্ধা, জুটলো না খাবারও

Join our WhatsApp group

করোনা আবহে রাস্তার পাশেই ১৪ দিন শুয়ে কাটালেন বৃদ্ধা। জুটল না খাবার, প্রাথমিক চিকিৎসা।

ADVERTISEMENT

Bengal Live কোচবিহারঃ সমাজ যেন মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল। প্রায় ১৪ দিন খোলা আকাশের নীচে পড়ে থাকার পর প্রশাসনিক তৎপরতায় হাসপাতালে ঠাঁই হল বৃদ্ধার। করোনার আবহে অমানবিক ঘটনার সাক্ষী হয়ে থাকলো কোচবিহারের ঝিনাইডাঙা। এদিন বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে ভর্তি করল প্রশাসন। বৃদ্ধার পরিচয় জানতে পার্শ্ববর্তী এলাকায় খোঁজ শুরু করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, গত প্রায় দুই সপ্তাহ থেকে ঝিনাইডাঙা এলাকায় রাস্তার পাশেই পড়ে ছিলেন ওই বৃদ্ধা৷ কথা বলাটা দূর, খাবারও খাচ্ছিলেন না তিনি। করোনা সংক্রমণের ভয়ে ওই বৃদ্ধার আশেপাশেও কেউ যাচ্ছিলেন না। স্থানীয় দুই একজন ব্যক্তি ওই বৃদ্ধাকে দূর থেকে খাবার দিলেও সেই খাবার না খেয়েই রাস্তার পাশে শুয়ে ছিলেন। গ্রামের বাসিন্দা শান্তি দত্ত জানান, তারা দুয়েকজন খাবার এগিয়ে দিলেও খেতে পারেন নি বৃদ্ধা। করোনা সংক্রমনের আতঙ্কেই কেউ তাকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করতে নিয়ে যায়নি৷ স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যা লতিকা রায় জানিয়েছেন, গ্রামবাসী মারফৎ ওই বৃদ্ধার খবর পান তিনি। এরপরেই তাঁকে উদ্ধারের জন্য প্রশাসনিক স্তরে জানান লতিকা দেবী। এদিকে ওই বৃদ্ধা শুধু মাত্র ইশারাতেই সাড়া দিচ্ছেন বলে জানা গেছে। ওই বৃদ্ধার পরিচয় সম্পর্কেও এখনও কিছু জানা যায়নি৷ পুলিশ ও প্রশাসন ঝিনাইডাঙা লাগোয়া গ্রাম গুলিতে খোঁজ শুরু করেছে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button