রাজ্য

চোর সন্দেহে গণপ্রহার, মৃত এক পরিযায়ী শ্রমিক

গনপ্রহারে মৃত্যু হলো এক পরিযায়ী শ্রমিকের। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

 

Bengal Live মালদাঃ চোর সন্দেহে গনপিটুনিতে মৃত্যু এক পরিযায়ী শ্রমিকের। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে হরিশ্চন্দ্রপুরের মালিওর-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের পিপুলতলা এলাকায়। শনিবার রাতে মৃত্যু হয় ওই যুবকের। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায় জুরে। যুবককে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ মৃতের পরিবারের। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত ওই ব্যক্তির নাম প্রতাপ মণ্ডল (২৪), বাড়ি মালিওর গ্রামে। মাস খানেক আগেই ভিন্ রাজ্য থেকে বাড়ি ফিরেছিলেন ওই যুবক। কয়েকদিনের মধ্যেই ফের নাগপুরে ফেরার কথা ছিল তার। শুক্রবার রাতে পিপুলতলা এলাকায় চুরি করতে আসা এক যুবককে হাতেনাতে ধরা হয়েছে বলে এলাকায় জানাজানি হতেই ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। এরপর দড়ি ও শেকল দিয়ে বেঁধে ফেলা হয় ওই যুবকের হাত পা। তারপরই শুরু হয় গণপ্রহার। বাসিন্দাদের একাংশ বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি হয়নি। ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে ছুটে আসেন প্রতাপ বাবুর বাড়ির লোকরাও। মারধরের পাশাপাশি তার পরিবারের কাছে ১৫ হাজার টাকা দাবি করা হয়।

এছাড়াও পরদিন সকালে টাকা দিতে হবে বলে লিখিত নেওয়া হয় তার পরিবারের কাছে। এরপর অচেতন অবস্থায় প্রতাপ বাবুকে নিয়ে আসা হয় হরিশ্চন্দ্রপুর হাসপাতালে। অবস্থার অবনতি ঘটায় তাকে স্থানান্তর করা হয় চাঁচল সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে। শনিবার রাতে সেখানেই মৃত্যু হয় ওই পরিযায়ী শ্রমিকের। রবিবার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ।

এবিষয়ে মৃতের মা সনজু মণ্ডল বলেন, আমার ছেলে চোর নয়। ওরা ওকে তুলে নিয়ে গিয়ে খুন করেছে। আমি চাই যারা আমার ছেলেকে খুন করেছে তাদের যেন কঠোর শাস্তি হয়।

অন্যদিকে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয়কুমার দাস বলেন, পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। যারা ওই ঘটনায় জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনমাফিক পদক্ষেপ করা হবে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button