রাজ্য

অটো-বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ৪

Join our WhatsApp group

মৃত চারজনের মধ্যে দুজন মহিলা, একজন যুবক ও একজন কিশোর। দেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

Bengal Live মালদাঃ অটো-বাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে অটোচালকের ছেলে সহ ৪ জনের মৃত্যু। আহত এক। বৃহস্পতিবার রাতে মালদা জেলার পুকুরিয়া থানার সামসী-আলাল ৮১ নম্বর জাতীয় সড়কের শ্রীপুর মিলনপল্লী লাগোয়া এলাকায় অটো-বাইক মুখোমুখি সংঘর্ষে ৪ জনের মৃত্যু হয়। গুরুতর জখম হয়েছেন একজন। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

সামসী গ্রামীণ হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত চারজনের মধ্যে দুজন মহিলা, একজন যুবক ও একজন কিশোর। মৃত দুই মহিলার নাম তসলিমা বিবি (৩০) এবং শুবরি বিবি (৫৫)। মৃত কিশোরের নাম শেখ আসলাম (১২)। তাঁদের মধ্যে শুবরি বিবি ও শেখ আসলাম এর বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুর-১ নং ব্লকের মহেন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের গাংনদীয়া গ্রামে ও তসলিমা বিবির বাড়ি রসিদাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের বিরুয়া গ্রামে। মৃত শেখ আসলাম অটোচালক শেখ ইসলামের ছোটো ছেলে ও তসলিমা বিবি তার শালিকা।মৃত যুবকের নাম মোজাম্মেল হক (২১)। তাঁর বাড়ি সামসীর ভগবানপুর গ্রামে। জখম ব্যক্তির নাম রিজু মণ্ডল (২৪)। তিনি সামসীর ভগবানপুর গ্রামের বাসিন্দা।

বস্তার ভেতর কে ! মানুষ না অন্যকিছু ? বস্তাবন্দি দেহ ঘিরে মালদায় চাঞ্চল্য

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, হরিশ্চন্দ্রপুর-১ ব্লকের গাংনদীয়া গ্রামের ৮ জন বাসিন্দা স্থানীয় বাসিন্দা শেখ ইসলামের অটোতে করে পান্ডুয়ার উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। অপরদিকে একটি বাইকে দুজন শ্রীপুরের দিক থেকে সামসী অভিমুখে আসছিলেন। ৮১ নং জাতীয় সড়কের উপর শ্রীপুর মিলনপল্লী লাগোয়া এলাকায় অটো-বাইক মুখোমুখি সংঘর্ষ বাধে।বাইক থেকে ছিটকে পড়েন আরোহীরা। বাইক চালক ঘটনাস্থলেই মারা যান। বাইক আরোহী রিজু মণ্ডলও সংজ্ঞাহীন।

এদিকে, যাত্রীসহ অটোটিও পালটি খায়। অটোর দুই যাত্রী তাসলিমা বিবি ও শুকরি বিবি ঘটনাস্থলেই মারা যান।১২ বছর বয়সী আরেক অটোযাত্রী আসলাম শেখও মালদা যাওয়ার পথে মারা যান। ঘটনার পর স্থানীয়রা এসে তাঁদের সামসী গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান। জখম বাইক আরোহী রিজু মণ্ডলের অবস্থা সংকটজনক। তাঁকে চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ট্রেন থেকে উদ্ধার ৩ ব্যাগ কচ্ছপ, ধৃত ১ ইউপি-র বাসিন্দা

হরিশ্চন্দ্রপুর-১ ব্লকের গাংনদীয়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত অটোযাত্রী শেখ আসলামের বাবা শেখ ইসলাম পুত্র শোকে শোকাহত। তিনি বলেন, আমরা পান্ডুয়া পীর বাবার মাজারে যাচ্ছিলাম। মানত ছিল। কিন্তু এভাবে দুর্ঘটনা ঘটবে ভাবতেই পারছি না। পুলিশ অটো ও বাইকটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন তারা।দেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ।

Related News

Leave a Reply

Back to top button