রাজ্য

পুলিশ নিয়োগের পরীক্ষা দিতে এসে পা ভাঙলো পরীক্ষার্থীর

পরীক্ষা দিতে কলেজে ঢোকার মুখে এক প্রফেসরের গাড়ি তাঁর বাম পায়ে সজোরে ধাক্কা মারে। পায়ের আঘাত গুরুতর হওয়ায় তাঁকে চিকিৎসার জন্য রশিদপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ।

 

Bengal Live বালুরঘাটঃ  পুলিশ নিয়োগের পরীক্ষা দিতে এসে পা ভাঙলো এক পরীক্ষার্থীর। মালদা জেলার এক চাকুরিপ্রার্থী বুনিয়াদপুরে পরীক্ষা দিতে আসলে এক প্রফেসরের গাড়ি তাঁকে সজোরে ধাক্কা মারে। গুরুতর আহত ওই যুবকের প্রাথমিক চিকিৎসার পর পরীক্ষা দেওয়ার পৃথক ব্যবস্থাপনা করা হয়।

 

রবিবার সারা রাজ্যের মতোই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাতেও দেখা গেলো একই চিত্র। এদিন পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগের পরীক্ষা দিয়েছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বিরামপুর সংসারী ব্লকের প্রায় পাঁচ হাজার পরীক্ষার্থী। জানা গেছে, এদিন চাকরির আশায় মালদা জেলার কলাই বাড়ি অঞ্চলের বাসিন্দা বিবেক সরকার (২৫) পুলিশ কনস্টেবলের পরীক্ষা দিতে বুনিয়াদপুর কলেজ আসে। কলেজে ঢোকার মুখে এক প্রফেসরের গাড়ি তাঁর বাম পায়ে সজোরে ধাক্কা মারে। পায়ের আঘাত গুরুতর হওয়ায় তৎক্ষণাৎ তাঁকে প্রশাসনের গাড়িতে করেই নিয়ে যাওয়া হয় রশিদপুর হাসপাতালে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর গঙ্গারামপুর মহাকুমার প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাঁকে পরীক্ষা দেবার জন্য ফের নিয়ে আসা হয় বুনিয়াদপুর কলেজে। এরপর পায়ে ব্যান্ডেজ বাঁধা অবস্থাতেই একটি পৃথক কক্ষে পুলিশ নিয়োগের পরীক্ষা দেন আহত ওই পরীক্ষার্থী।

 

প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে, ঘটনার খবর পাওয়া মাত্রই গঙ্গারামপুর মহাকুমার ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মনোতোষ মন্ডল সহ পুলিশের প্রতিনিধিদল রশিদপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ছুটে যান। এরপরই প্রশাসনিক তৎপরতায় ওই পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা দেবার জন্য বুনিয়াদপুর কলেজে একটি আলাদা ঘরের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে তাঁর পরিবারের সঙ্গে। ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট মনোতোষ মন্ডল জানান, আপাতত ওই পরীক্ষার্থী আহত পা নিয়েই শুয়ে শুয়ে পরীক্ষা দিচ্ছে। তা শেষ হলেই তাঁকে গঙ্গারামপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button