রায়গঞ্জ

বিজেপির যুব নেতা হত্যা মামলাঃ মঙ্গলবার জেলা জুড়ে বনধের ডাক

রবিবার রাত প্রায় দশটা নাগাদ বাড়ির সামনেই গুলিবিদ্ধ হন উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপির যুব নেতা মিঠুন ঘোষ।

 

Bengal Live রায়গঞ্জঃ বিজেপির উত্তর দিনাজপুর জেলা যুব মোর্চা নেতা মিঠুন ঘোষ হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার জেলা জুড়ে বনধের ডাক দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার৷ মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত আট ঘন্টা সাধারণ ধর্মঘটের ডাক দিলেন তিনি। এদিকে এই হত্যার ঘটনার সাথে যুক্ত থাকার অভিযোগে রায়গঞ্জ জেলা পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। অপর অভিযুক্তের খোঁজ  চালাচ্ছেন তদন্তকারীরা।

রবিবার রাতে বাড়ির সামনেই গুলিবিদ্ধ হন বিজেপির যুব নেতা মিঠুন ঘোষ। রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপরেই বিজেপি নেতা প্রদীপ সরকার এই হত্যার ঘটনার পেছনে তৃণমূল কংগ্রেসের হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেন। এদিকে ঘটনার পর তদন্তে নেমে পুলিশ একজনকে গ্রেপ্তার করে।

রায়গঞ্জ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অর্ষ বর্মা বলেন, এই ঘটনার সাথে এখনও রাজনীতির কোনও সম্পর্ক পাওয়া যায়নি। অভিযুক্ত দুইজনের সাথেই যোগাযোগ ছিল মিঠুনের৷ প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে, ঘটনার কিছুক্ষণ আগে একটি হোটেলে খাওয়াদাওয়া করে মিঠুন, সন্তোষ ও সুকুমার ঘোষ। এরপর বাড়ি থেকে কিছু দূরে ওই দুইজনকে দাঁড় করিয়ে নিজে বাড়িতে ঢোকে মিঠুন৷ দুটি আগ্নেয়াস্ত্র দেখানোর জন্য নিয়ে যায় সে। সেই সময়ই দুর্ঘটনাক্রমে গুলিবিদ্ধ হন মিঠুন ঘোষ। সন্তোষ মহন্তকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। অপর অভিযুক্ত সুকুমার ঘোষের খোঁজ চলছে। তদন্তে আরও কিছু তথ্য উঠে আসবে বলেই মনে করছেন তদন্তকারীরা।

এদিকে পুলিশের দাবিকে মানতে চাননি রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তাঁর দাবি, এই হত্যার ঘটনার সাথে যুক্ত রয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের দুষ্কৃতীরা। ঘটনার সঠিক তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি৷ পাশাপাশি যুব নেতার হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার ৮ঘন্টা জেলা জুড়ে বনধের ডাক দেন তিনি।

Related News

Leave a Reply

Back to top button