রায়গঞ্জ

কালিয়াগঞ্জে বিজেপি নেতৃত্বের গাড়িতে হামলা, মারধর, গাড়ি ভাঙচুর, খোঁজ নেই প্রার্থীর

অসন্তোষ চরমে। কালিয়াগঞ্জে যাওয়ার পথে বিজেপি নেতৃত্বের গাড়িতে হামলা। মারধর করা হল নেতৃত্বকে। দেখা নেই প্রার্থীর।

 

Bengal Live রায়গঞ্জঃ কালিয়াগঞ্জে দলীয় কর্মসূচিতে যাওয়ার পথে বিজেপি নেতৃত্বের গাড়িতে হামলা চালানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য। মারধর করার পাশাপাশি নেতৃত্বের গাড়িটিতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কোনও রকমে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে আসেন বিজেপি নেতারা। কে বা কারা হামলা চালিয়েছে তা নিয়ে ধন্দে রয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব। এদিকে হামলার ঘটনার পর থেকেই খোঁজ নেই কালিয়াগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী সৌমেন রায়ের।

প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই অসন্তুষ্ট কালিয়াগঞ্জ বিজেপি নেতৃত্ব। বহিরাগত প্রার্থীকে নির্বাচনে দাঁড় করানো নিয়ে জেলা ও রাজ্য নেতৃত্বকে নিজেদের ক্ষোভের কথা জানান তাঁরা। প্রার্থী বদলের দাবিতেও সরব হন তাঁরা। দাবি মানা না হওয়ায় মঙ্গলবার দিনই প্রায় ২৫০ জন কার্যকর্তা দলীয় পদ থেকে ইস্তফা দেন। এদিকে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ন’টা নাগাদ রায়গঞ্জে এসে পৌঁছান বিজেপি প্রার্থী সৌমেন রায়। তাঁকে স্বাগত জানানো হয় জেলা নেতৃত্বের পক্ষ থেকে৷ রায়গঞ্জে রাত কাটিয়ে এদিন সকালে নিজের কেন্দ্রে যাওয়ার কথা ছিল সৌমেন রায়ের।

জানা গেছে, এদিন বিজেপি নেতৃত্ব কালিয়াগঞ্জে যাওয়ার পথে কেউ বা কারা গাড়ি আটকে দেয়। মারধর করা হয় গাড়িতে থাকা বিজেপি নেতৃত্বকে। ভাঙচুরও চালানো হয় বলে বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ। তবে কারা হামলা চালিয়েছে, তা নিয়ে ধন্দে রয়েছেন বিজেপি নেতৃত্বও। তবে দলেরই একাংশের সন্দেহ, বিক্ষুব্ধ বিজেপি কর্মীরাই প্রার্থীকে এলাকায় ঢুকতে বাধা দেওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে এই হামলা চালিয়েছে।

যদিও বিজেপি নেতা প্রকাশ পুস্তির দাবি, প্রার্থী কোথায় আছেন তা তিনি জানেন না। সাংগঠনিক কাজ করতেই কালিয়াগঞ্জ যাচ্ছিলেন তিনি। সেই সময়ই বেশ কয়েকজন মিলে হামলা চালায় তাঁর গাড়িতে। মারধরও করা হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। কোনও রকমে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে জেলা কার্যালয়ে এসে উপস্থিত হন তিনি। কে বা কারা হামলা চালিয়েছে তা নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রকাশ পুস্তি। এদিকে কালিয়াগঞ্জের প্রার্থী সৌমেন রায় কোথায়? সেই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারছেন না কেউই।

Related News

Leave a Reply

Back to top button