রায়গঞ্জ

মহালয়ার ভোরে নতুন ভাবনা রায়গঞ্জের প্রবীণদের, আবেগে বাঁধা পড়বেন সকলেই

ইন্টারনেটের যুগে ঐতিহ্যের স্মৃতি ধরে রাখতে শহরের প্রবীণদের উদ্যোগ। রেডিওতে মহালয়া শোনার বিশেষ আয়োজন করছে উত্তর দিনাজপুর প্রবীণ নাগরিক কল্যান মঞ্চ।

Bengal Live রায়গঞ্জঃ আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা, তারপরেই পিতৃপক্ষের অবসান ঘটিয়ে দেবীপক্ষের সূচনা। মহালয়ার প্রভাতে আকাশবাণীতে শোনা যাবে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের উদাক্ত কন্ঠে সংস্কৃত চন্দীপাঠ। ভেসে আসবে দেবীর আগমনী বার্তা।

তবে উন্নত প্রযুক্তির দিনে এখন রেডিওর প্রচলন তেমন আর নেই। প্রথা ভেঙেছে। জেনারেশন ওয়াই রেডিও থেকে অনেক বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছে ইন্টারনেট, সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফেসবুক,ইউটিউব, হোয়াটসঅ্যাপের মধ্যেই তাঁদের ঘোরাফেরা। ফলে মহালয়া শোনার জন্য রেডিওর ব্যবহার আজ ভুলতে বসেছে প্রায় সকলেই।

কিন্তু রায়গঞ্জের প্রৌঢ়েরা সেই প্রথা এখনই ভাঙতে চাইছেন না। মহালয়ার প্রভাতে সকলে একত্রিত হয়ে রেডিওতে দেবীর আগমনী বার্তা শোনার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তাঁরা। শুধু বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কন্ঠে স্তোত্রপাঠই নয়, শহরের বিভিন্ন ঘাটে তর্পণ মেলার আয়োজনও করছেন তাঁরা। পাশাপাশি বার্তা দেবেন পরিবেশ রক্ষারও।

উত্তর দিনাজপুর প্রবীণ নাগরিক কল্যাণ মঞ্চের অন্যতম সদস্য গোপাল মিত্র জানিয়েছেন, সোমবার তাঁদের কার্যকরী কমিটির বৈঠকে মহালয়াকে নিয়ে বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে, রেডিওতে মহালয়া শোনা,তর্পণ মেলা ও পরিবেশ রক্ষার বার্তা দেওয়া।

তিনি বলেন, সেদিন ভোরে মঞ্চের রায়গঞ্জ শাখার প্রায় শতাধিক প্রবীণ একত্রিত হচ্ছেন। প্রথমে সংগঠনের কক্ষেই রেডিওতে দেবীর আগমনী বার্তা শুনবেন তাঁরা। এরপর সূর্যের আলো ফোটার আগে শহরের বিভিন্ন ঘাটে পৌঁছে তর্পণ মেলায় অংশ নেবেন। সেখানেই পরিবেশ রক্ষা নিয়ে বার্তা দেবেন তাঁরা।

প্রবীণ নাগরিক কল্যাণ মঞ্চের সম্পাদক রথীন্দ্র কুমার দেব বলেন, একটা সময় ছিল, যখন ঘড়িতে চারটে বাজার আগে আশপাশের সকল বাড়ি থেকে একইসাথে রেডিওর কোঁ শব্দ ভেসে আসতো। এরপর দমবন্ধ করা উৎকণ্ঠার মাঝে শুরু হতো মন্ত্রমুগ্ধ করা চণ্ডীপাঠ। মহালয়ার সকালে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কন্ঠে চন্ডীপাঠ না শুনলে আজও দেবীর আগমন অনুভব করা যায় না।

আক্ষেপের সুরে এদিন রথীন্দ্র বাবুকে বলতে শোনা যায়, “আজ আর সেইসব দিন কোথায়? ইন্টারনেটের যুগে সেই সব স্মৃতি আমরা প্রায় সকলেই ভুলতে বসেছি। ” রথীন্দ্র বাবু বলেন, সেই কারণেই ঐতিহ্য ধরে রাখতে এই বছর রেডিওতে মহালয়া শোনার বিশেষ আয়োজন করা হচ্ছে। এই আয়োজনের কথা জানানোর মাঝেই তিনি বলেন, তর্পণ মেলা ও পরিবেশ, নদী রক্ষার বার্তাও তাঁরা দেবেন সেদিন সকালে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button