ইসলামপুর

কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগ,উত্তাল চোপড়া, পুড়ল বাস ও পুলিশের গাড়ি

মাধ্যমিক উত্তীর্ণ ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগে উত্তাল চোপড়া। জেলাজুড়ে আন্দোলনে বিজেপি। চোপড়ায় বাসে ও পুলিশের গাড়িতে আগুন। টিয়ার গ্যাস ফাটিয়ে পুলিশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা।

Bengal Live রায়গঞ্জঃ এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুনের অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া। দুষ্কৃতীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে জেলাজুড়ে বিক্ষোভ বিজেপির। ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ স্থানীয় বাসিন্দাদের। একটি সরকারি বাসে আগুন লাগানোর অভিযোগ উঠল বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে। দুটি পুলিশের গাড়িতেও আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে। কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার সকালে চোপড়া থানার সোনাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বসলামপুরে এক কিশোরীর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, শনিবার গভীর রাতে কিশোরীকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে আসে দুষ্কৃতীরা। তারপর কিশোরীকে ধর্ষণ করে খুন করেছে দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন বসলামপুর গ্রামের বাসিন্দারা।

এই ঘটনার প্রতিবাদে এবং দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রাজ্য সড়ক ও ৩১ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন গ্রামের বাসিন্দারা। রাস্তায় লাঠিসোঁটা নিয়ে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভে সামিল হন গ্রামের শতাধিক বাসিন্দা। বিক্ষোভকারীদের দাবি যতক্ষণ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার না করা হবে ততক্ষণ ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে অবরোধ চলবে। এদিকে খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে আসে চোপড়া থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠানোর পাশাপাশি ঘটনার তদন্তে নেমেছে চোপড়া থানার পুলিশ।

এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে রায়গঞ্জ সহ জেলাজুড়ে প্রতিবাদে নামে বিজেপি। রায়গঞ্জের শিলিগুড়ি মোড়ে বিক্ষোভ দেখান বিজেপির কর্মী সমর্থকেরা। এদিকে চোপড়ায় সময় গড়ানোর সাথে সাথে পরিস্থিতি ক্রমশ উদ্বেগজনক হয়ে ওঠে। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার একটি বাসে ও পুলিশের একাধিক গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে বিশাল পুলিশ বাহিনী মজুত ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই কিশোরীর মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করা হয়েছে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে৷ ভিডিওগ্রাফিও করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে মৃত্যুর কারণ হিসেবে বিষের প্রভাব উল্লেখ করা হলেও শরীরে কোনও ক্ষত অথবা যৌন বা শারীরিক নির্যাতনের কোনও চিহ্ন মেলেনি। কিশোরীর রহস্য মৃত্যুর পর সারাদিন পেরিয়ে গেলেও এখনও থানায় কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি। এদিকে ইসলামপুর পুলিশ জেলার সুপার শচিন মক্কার জানান, পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button