পোর্টজিন

“অতীরের সময়গুলো কেন বর্তমানের চেয়ে বেশি ভালো লাগে?” লিখেছেন ঐশ্বর্য্য কর্মকার

Bengal Live পোর্টজিনঃ পোর্টজিন কি? পোর্টজিন একটি অনলাইন ম্যাগাজিন। প্রতি সপ্তাহের রবিবার এটি বেঙ্গল লাইভের (bengallive.in) এর পোর্টজিন বিভাগ থেকে প্রকাশিত হয়।

bengal live portzine Aishwarya Karmakar

 

” জানো কি অনেক যুগ চলে গেছে? মরে গেছে অনেক নৃপতি? অনেক সোনার ধান ঝরে গেছে জানো না কি? -জীবনানন্দ দাশ ”

অতীত যে বর্তমানের থেকে সুন্দর ছিল তা শুধু এই গানে না, যুগ যুগ ধরে অনেক কবি ও শিল্পী তাদের সৃষ্টির মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমের আগে কি সুন্দর দিন কাটাইতাম কিংবা পিঙ্ক ফ্লয়েডের হাই হোপস এর কথাই বলুন, এই অতীতের প্রতি কাতরতা সব মানুষের মধ্যেই কম বেশি লক্ষণীয়।

একদিকে বর্ষায় গাজীর গানের কথা ভেবে শাহ আবদুল করিম যেমন আনন্দের স্মৃতিতে কাতর, অন্যদিকে, পিঙ্ক ফ্লয়েডের ডেভিড গিলমোর অতীতের সবুজ ঘাস, আলো যেগুলো বর্তমানের থেকে সবুজতর, উজ্জ্বল ছিল ভেবে বিষণ্ণ হন। এ যেনো এক বিশ্বজনীন মানব উপলব্ধি, যা যুগ যুগ ধরে ছিল এবং আগামীতেও চলমান থাকবে।

১৯৮৮ সালে জার্নাল অফ পার্সোনালিটি অ্যান্ড সোশ্যাল সাইকোলজির একটি গবেষণাপত্রে টরি হিগিন্স এবং চার্লস স্ট্যাঙ্গোর একটি গবেষণা করেন। টরি হিগিন্স এবং চার্লস স্ট্যাঙ্গোর যুক্তি দেন যে মানুষ যখন অতীতের ঘটনাগুলো সম্পর্কে চিন্তা করে, তখন তারা সেই ঘটনার মূল্যায়নটি শুধু মনে রাখে, কিন্তু সেই মূল্যায়নের কারণটি নয়। অর্থাৎ ঘটনাটি কি তাদের কাছে ভালো ছিল নাকি মন্দ ছিল সেটুকুই মনে রাখে।

যখন অতীতের ঘটনাগুলোর দিকে আমরা ফিরে তাকাই , আমরা তখন জানি যে সেগুলির পরিণতি কী হয়েছিল। মনস্তাত্ত্বিকদের মতে কোনো ঘটনায় অনিশ্চয়তা আমাদের মনে চাপ সৃষ্টি করে। উদ্বেগ আর দুশ্চিন্তা কাজ করে যখন আমরা কোনোকিছু সম্পর্কে অনিশ্চিত থাকি, যখন জানি না যে কোনো ঘটনার ফলাফল কোনদিকে মোড় নেবে।

এজন্যে বর্তমান প্রায়ই অতীতের চেয়ে কম আনন্দদায়ক মনে হয় আমাদের, কারণ আমরা প্রতিনিয়তই কোনো না কোনো কিছু নিয়ে চিন্তা করছি কীভাবে কী ঘটবে। কিন্তু বর্তমান মুহূর্তে, আপনি এটি করতে পারবেন না কারণ জীবন অনেক ক্ষেত্রেই অনিশ্চয়তা, অস্বস্তি এবং চাপে পূর্ণ।
যেমন হাইস্কুলে থাকতে হয়তো শৈশবের কথা ভেবে মনে হতো প্রাইমারি স্কুলের দিনগুলো আরো সহজ, সুন্দর ছিল। মনে হতো শৈশবের সেসব স্মৃতিই মজাদার ছিল।আবার, কলেজে মনে হতো হাইস্কুল অনেক সহজ ছিল, সেদিনগুলো অনেক আনন্দের।

এভাবে বিশ্ববিফ্যালয়, চাকরিক্ষেত্র যত ধাপই অতিক্রম করি না কেন, আগের স্মৃতি সবসময়ই সহজ ও আনন্দময় বলে অনুভূত হয়। অথচ, যখন জীবনের ঐ সময়গুলো পার করছিলাম, তখন সেই সময়ের থেকে কঠিন সময় কখনোই যেন পার করিনি বলে মনে হতো। অতীতেই যেন সবকিছুই সহজ ও সুন্দর ছিল।

কীভাবে লেখা পাঠাবেন?
নীচে উল্লিখিত হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার কিংবা ইমেল আইডিতে লেখা পাঠাতে পারবেন।
হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার~ 9635459953
ইমেল আইডি~ bengalliveportzine@gmail.com
লেখার সঙ্গে নিজের নাম, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর এবং একটি ছবি পাঠানো আবশ্যক।
ভ্রমণ কাহিনীর সঙ্গে নিজের তোলা দুটো ছবি পাঠাতে হবে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button