রায়গঞ্জ

দুই মাথা, চার হাত, চার‌ পা , রায়গঞ্জ মেডিক্যালে বিরল শিশুর জন্ম

গর্ভবতী অবস্থায় আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করেই বিষয়টি ধরা পড়েছিল কিন্তু সেসময় আর কিছু করার ছিল না। এরপর এদিন অদ্ভুত দর্শন শিশুটি জন্ম নেয়।

 

Bengal Live রায়গঞ্জঃ মাতৃগর্ভে জট পাকিয়ে রয়েছে দুই যমজ শিশু। অস্ত্রোপচারের পর দেখা গেল শিশুদের দুই মাথা চার হাত চার‌ পা গলা থেকে পেট পর্যন্ত জোড়া। এমনই বিরল শিশুর জন্ম ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ালো রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে। শিশু ও মা উভয়ে সুস্থ থাকলেও তাদের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পর্যবেক্ষণে রেখেছে।

জানা গেছে, বুধবার সকালে প্রসব যন্ত্রনা নিয়ে এক প্রসূতি রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই প্রসূতির নাম আখতারা খাতুন, তিনি উত্তর দিনাজপুরের ইটাহারের ছয়ঘরা গ্রামের বাসিন্দা। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর তড়িঘড়ি তাঁর অস্ত্রোপচার করা হয়। আর তারপরই নবজাত শিশুটিকে দেখে হতবাক হয়ে যান চিকিৎসকরা। দেখা যায় মহিলার গর্ভের দুই যমজ সন্তান একে অপরের সাথে মিশে গেছে, তাদের চারটি করে হাত-পা আর দুটি মাথা আছে। গলা থেকে তলপেট পর্যন্ত মিলে রয়েছে দুই অঙ্গ। শিশুগুলি চিকিৎসকদের দক্ষতায় জীবিত অবস্থায় জন্মলাভ করে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, এই অঞ্চলে এমন ঘটনা খুব কমই ঘটেছে, তাই নিঃসন্দেহে এটি একটি বিরল ঘটনা। ওই প্রসূতি বর্তমানে সুস্থ রয়েছেন এবং শিশুদের চিকিৎসকেরা নজরে রেখেছেন।

প্রসূতির পরিজনেরা জানিয়েছেন, ওই প্রসূতির স্বামী আশরাফুল হক পেশায় রাজমিস্ত্রী, তাদের আড়াই বছরের একটি ছেলে রয়েছে। এটি তাদের দ্বিতীয় সন্তান। গর্ভবতী অবস্থায় আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করেই বিষয়টি ধরা পড়েছিল কিন্তু সেসময় আর কিছু করার ছিল না। এরপর এদিন অদ্ভুত দর্শন শিশুটি জন্ম নেয়। তাঁরা সন্তানকে সুস্থ ভাবে বাড়িতে নিয়ে যেতে চান ।

মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বিরল অবস্থায় জন্মগ্রহণ করলেও ওই শিশুগুলির শারিরীক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। তাঁরা এখন পর্যবেক্ষণে রয়েছে। পরবর্তীতে তাঁদের পরিবারের সাথে আলোচনা করে শিশু দুটির শরীর আলাদা করতে উন্নত চিকিৎসার জন্য বাইরে পাঠানোর চেষ্টা করা হবে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button