রায়গঞ্জ

দিনেদুপুরে শিয়ালের উপদ্রব রায়গঞ্জে, আহত দুই

গ্রামজুড়ে দিবানিশি শিয়ালের উপদ্রব। আক্রমণ থেকে বাঁচতে শিয়ালকে পিটিয়ে মারার অভিযোগ।

 

Bengal Live রায়গঞ্জঃ সাতসকালে শিয়ালকে পিটিয়ে মারার ঘটনায় ছড়ালো চাঞ্চল্য। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ শহর লাগোয়া মাড়াইকুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের পদ্মপুকুর গ্রামে। ঘটনায় আহত দুই গ্ৰামবাসী। বন্য প্রানীকে পিটিয়ে মারার ঘটনায় আহত ব্যক্তির শাস্তির জন্য সরব পশুপ্রেমীরা।

জানা গিয়েছে, আহত ব্যক্তির নাম সুব্রত সরকার। সুব্রত বাবুর দাবি, এলাকাজুড়ে শুধু রাতেই নয় দিনের বেলাতেও লক্ষ্য করা যায় শিয়ালের উপদ্রব। তবে এর আগে কখনও বাড়ির ভেতরে ঢুকে আসেনি শিয়াল। এদিন সকালে তার বাড়িতে আচমকাই ঢুকে পড়ে শিয়ালটি। সেই সময় ওই শিয়ালের আক্রমণে আহত হন সুব্রত বাবু ও তার স্ত্রী। এরপর আত্মরক্ষার জন্য লাঠি দিয়ে শিয়ালটিকে আঘাত করেন তিনি। লাঠির আঘাতে সেখানে মৃত্যু হয় শিয়ালটির।

এ বিষয়ে সুব্রত বাবু স্ত্রী অঞ্জনা দাবি জানান, আচমকাই বাড়িতে ঢুকে পড়ে আক্রমণ করে ওই শিয়ালটি। তার স্বামীকে বাঁচাতে তিনিও আঘাত করেন ওই শিয়ালটকে।

ঘটনায় এলাকাবাসীরা জানান, দিবানিশি শিয়ালের উপদ্রবে আতঙ্কে দিন কাটে তাদের। শিশু সন্তান থেকে শুরু করে বাড়িতে পোষা গবাদি পশুদের নিয়েও চিন্তিত তারা। লোকালয়ে শিয়ালের উপদ্রব রুখতে বনদপ্তরের কাছে দ্রুত ব্যবস্থার আর্জি জানিয়েছেন তারা।

এদিকে অন্য প্রাণীকে পিটিয়ে মারার খবরে সরব হয়েছেন পশুপ্রেমী সংগঠন। উত্তর দিনাজপুর পিপুল ফর অ্যানিমেলস-এর সম্পাদক গৌতম তান্তিয়া জানান, মানুষ বন্যপ্রাণীদের থাকার জায়গা নষ্ট করছি বলেই লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে তারা। শিয়ালটিকে পিটিয়ে মারার বিষয়টি বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী একটি দণ্ডনীয় অপরাধ। বন দপ্তরকে জানানো হবে এবং বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে শিয়ালকে মারার জন্য ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

Related News

Leave a Reply

Back to top button