রাজ্য

পাকাপাকি ভাবে থেমে গেলো ১৬ টি ট্রেনের চাকা, তার মধ্যে ৫ জোড়া বাংলার

অলাভবান হওয়ায় বাতিল হওয়া এই ট্রেনগুলি মূলত চলাচল করত বাংলা, বিহার ও ঝাড়খণ্ডের মধ্যে।

Bengal Live ডেস্কঃ পাকাপাকি ভাবে থেমে গেলো ১৬ টি ট্রেনের চাকা। বাতিল ট্রেনগুলির প্রত্যেকটিই দক্ষিণ পূর্ব রেলের। কার্যত পর্যাপ্ত লাভের মুখ না দেখাতে পারার কারণেই বাতিলের খাতায় নাম লেখালো ট্রেনগুলি।

করোনা আবহে ট্রেনের সংখ্যা অনেকাংশে কমিয়ে এনেছে রেল। কিন্তু এবার আপ ও ডাউন মিলিয়ে মোট ১৬ টি ট্রেনকে একেবারে বাতিল ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। বাতিল হওয়া এই ট্রেনগুলি মূলত চলাচল করত বাংলা, বিহার ও ঝাড়খণ্ডের মধ্যে।সম্প্রতি তথ্য জানার অধিকার আইনে একটি আবেদনের প্রেক্ষিতে রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই ট্রেনগুলিতে বেশ কিছুদিন যাবৎ পর্যাপ্ত যাত্রী হচ্ছে না, ফলে এগুলি চালিয়ে সরকার লাভবান হতে পারছে না। আর সেই কারণেই ওই ট্রেনগুলিকে অলাভজনক ঘোষণা করে বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বাতিল হয়ে যাওয়া ট্রেনগুলির মধ্যে রয়েছে বাংলার পাঁচ জোড়া ট্রেন। সেগুলি হল – হাওড়া-পুরুলিয়া আপ ও ডাউন লালমাটি এক্সপ্রেস, আপ ও ডাউন খড়্গপুর-পুরুলিয়া ইন্টারসিটি এক্সপ্রেস, আপ ও ডাউন শালিমার-আদ্রা রাজ্যরানি এক্সপ্রেস, ঝাড়গ্রাম-পুরুলিয়া বিরসা মুন্ডা এক্সপ্রেস এবং খড়্গপুর-হিজলি মেমু এক্সপ্রেস।

এছাড়াও, রাঁচি থেকে কোডারমা, হাজারিবাগ হয়ে পটনাগামী -পটনা এসি এক্সপ্রেস ট্রেনটি আর চলবে না। চলবে না একদা অতি জনপ্রিয় খড়্গপুর-পুরুলিয়া ইন্টারসিটি এক্সপ্রেস এবং শালিমার-আদ্রা রাজ্যরানি এক্সপ্রেস । পাশাপাশি বাতিল হয়েছে খড়্গপুর-হিজলি মেমু এবং পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম বিরসা মুন্ডা এক্সপ্রেস। যদিও স্থানীয় যাত্রীদের যাতায়াতে অতীব সহায়তা করত এই ট্রেনগুলি। তবে রেলের বক্তব্য, সাম্প্রতিক কালে এই ট্রেনগুলিতে যাত্রীদের সংখ্যা ক্রমশ কমে আসছে, তাই বাধ্য হয়ে এগুলি আর না চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল।

Leave a Reply

Back to top button