লাইফ স্টাইল

সাদা নুনের বদলে খান বিট নুন , কমবে কোষ্ঠকাঠিন্য সহ একাধিক রোগ

সাদা নুনের পরিবর্তে খাওয়ার অভ্যাস করুন বিট নুন।এই অভ্যাস সারিয়ে দিতে পারে আপনার শরীরের অনেক রোগ। কমবে কোষ্ঠকাঠিন্য , কোলেস্টেরল, ডায়াবেটিস, অবসাদ এবং পেট সংক্রান্ত অনেক সমস্যা।

Bengal Live ডেস্কঃ  সব বাড়িতেই সাধারণ নুন ব্যবহার করা হয়,বা খাওয়ার পাতে নুন ছাড়া চলেনা অনেকেরই। কিন্তু এই সাদা নুন স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক। সাদা নুনে থাকে অ্যালুমিনিয়াম সিলিকেট এবং পটাসিয়াম আয়োডেট যা স্বাস্থ্যের পক্ষে হানিকারক। তবে খুব কম মানুষই বিট নুন অর্থাৎ ব্ল্যাক সল্ট ব্যবহার করেন। এই অভ্যাস অজান্তেই সারিয়ে দিতে পারে আপনার শরীরের অনেক রোগ।

আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞদের মতে বিট নুন গ্যাস,অ্যাসিডিটি বা কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যা সহজেই দূর করে।এছাড়াও কমবে কোলেস্টেরল, ডায়াবেটিস, অবসাদ এবং পেট সংক্রান্ত অনেক সমস্যা।প্রতিদিন সকালে গরম জলে বিট নুন মিশিয়ে খেলে সুস্থ থাকবে শরীর। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক এই বিট নুনের উপকারিতা!

জেলা সভাপতির অপসারণের দাবিতে রায়গঞ্জে বিক্ষোভ বিজেপি কর্মীদের

বিটনুনের উপকারিতাঃ

  •  অম্বল নিরাময়েঃ অতিরিক্ত অম্বলের সমস্যায় সহায় হতে পারে বিট নুন। বিট নুনের ক্ষারীয় প্রকৃতি পেটে অ্যাসিড উৎপাদনের ভারসাম্য বজায় রাখে । খনিজ পদার্থ দ্বারা পরিপূর্ণ বলে এই নুন অ্যাসিডিটি নিরাময়ের জন্য অত্যন্ত উপযুক্ত।
  • কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতেঃ ব্ল্যাক সল্ট বেশ কয়েকটি আয়ুর্বেদিক চূর্ণ এবং বাড়িতে তৈরি হজমিগুলির একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ যা কোষ্ঠকাঠিন্য সহ অন্যান্য অনেক পেটের অসুস্থতা সারাতে সক্ষম। বিট নুন শরীরে রেচক হিসাবে কাজ করে হজমের উন্নতি ঘটায় ।
  •  কোলেস্টেরল ঠিক রাখতেঃ বিটনুন বা ব্ল্যাক সল্ট শরীরে রক্তচলাচল স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে । পাশাপাশি, ব্লাড ক্লটস আর কোলেস্টেরলের সমস্যাও দূর করে।
  •  ওজন কমাতেঃ বিট নুন ওজন কমাতে সহায়ক। এতে উপস্থিত খনিজগুলি অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান হিসাবেও কাজ করে। এ কারণে শরীরে উপস্থিত বিপজ্জনক ব্যাকটিরিয়া দূর হয়।এছাড়াও সোডিয়াম বেশি থাকায় শরীরকে সতেজ ও চনমনে রাখতে সাহায্য করে বিটনুন।

দীর্ঘদিন বন্ধ পঠনপাঠন , স্কুল বাড়ি ঢেকেছে ঝোপ জঙ্গলে

  •  ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনেঃ ডায়াবেটিসের রোগীদের সাদা লবণের পরিবর্তে করে বিট নুন খাওয়া উচিত। বিটনুন শরীরে রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে।
  •  ত্বক পরিষ্কার রাখতেঃ আপনার ক্লিনজার বা স্ক্রাবের সাথে অল্প পরিমাণে ব্ল্যাক সল্ট করতে পারেন , এতে আপনার ত্বক চকচকে হয়ে উঠতে পারে। এটি কারণ হল নুনের দানাদার আকারটি যা ত্বকের রোমকূপকে পরিষ্কার করতে উপযোগী ।

 

বিট নুনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াঃ

বিট নুন যদি সঠিক পরিমানে খান তাহলে কোনো সমস্যার কারণ নেই। তবে এর অতিরিক্ত ব্যবহারে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলেও দিতে পারে। সালফেটের পরিমাণ বেশি থাকায় এটি গর্ভাবস্থায়ও সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। গর্ভবতী মহিলাদের ক্ষেত্রে উচ্চ রক্তচাপের কারণও হতে পারে। এক্ষেত্রে চিকিৎসকের থেকে পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন। তবে পরিমাণ বুঝে খেলে সাদা নুনের তুলনায় এটি অনেকাংশেই ভালো।

Leave a Reply

Back to top button