লাইফ স্টাইল

হৃদরোগ থেকে ত্বকের লাবণ্য- বাজিমাত এলাচের জলেই

রোগমুক্তি থেকে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য, সবেতেই মুশকিল আসান এলাচ। কিভাবে বানাবেন এলাচের জল আর কিইবা এর সুফল জেনে নিন চটজলদি-

Bengal Live ডেস্কঃ  গরম মশলার একটি উল্লেখযোগ্য উপাদান হলো এলাচ। পায়েস কিংবা পোলাওয়ের মতো রান্নায় দু’চারটে‌ এলাচ দানা না দিলে তার স্বাদ যেন ঠিক খোলে না। তবে শুধু যে স্বাদে গন্ধে রান্নাকে ভরিয়ে তোলে এলাচ এমনটা নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, এলাচ এমন একটি মশলা যা শারীরিক নানাবিধ রোগ দূর করতে সাহায্য করে। নিয়মিত এলাচ ভেজানো জল সেবন করলে মুক্তি মিলতে পারে শারীরিক বহুবিধ সমস্যা থেকে , বয়সের ছাপ এড়িয়ে ধরে রাখা যেতে পারে ত্বকের লাবণ্যও। আসুন জেনে নিই এলাচের জলের কার্যকারিতা-

কিভাবে বানাবেন এলাচের জল-

এলাচের জল বানানোর জন্য প্রথমে একটি পাত্রে এক লিটার জল নিয়ে তার মধ্যে ৫ থেকে ৬টি এলাচ মাঝখান থেকে ফাটিয়ে দিয়ে দিন। সারারাত ওই এলাচগুলি ভিজিয়ে রাখুন জলে। এরপর সকালে ওই জল ততক্ষন ভালোভাবে ফোটাতে থাকুন যতক্ষন না জলের পরিমাণ তিন চতুর্থাংশ হয়ে যায়। এবার জল থেকে এলাচ ছেঁকে নিন এবং ঠান্ডা করে দিনে ৩ থেকে ৪ বার অল্প অল্প করে খেতে থাকুন এলাচের জল।

এবার জেনে নিই শরীর সুস্থ রাখতে কিভাবে সহায়তা করে এলাচের জল-

হৃদরোগ হ্রাসে এলাচের জল:
কোলেস্টেরলের বৃদ্ধি আটকাতে সাহায্য করে এলাচের জল। তাই নিয়মিত এটি সেবন করলে শরীরে ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে আসে ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকখানি হ্রাস পায়।

উচ্চ রক্তচাপ হ্রাসে এলাচের জল:
এলাচের মধ্যে রয়েছে ডিউরেটিক উপাদান যা উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা কমিয়ে আনতে কার্যকরী। একইসাথে দেহের বাড়তি ফ্লুইড দূর করে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে আনতে সহায়তা করে এলাচের জল।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কার্যকরী এলাচের জল:
এলাচ রক্তে শর্করার সঠিক মাত্রা বজায় রাখতে সাহায্য করে । তাই ডায়াবেটিসের রোগীদের নিয়মিত এলাচ ভেজানো জল পান করার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

রক্ত পাতলা করতে কার্যকরী এলাচের জল:
রক্ত পাতলা করতে সাহায্য করে এলাচ। প্রতিদিন এলাচের জল খেলে রক্তের ঘনত্ব ঠিক থাকে।তাই রক্তনালীতে রক্ত জমে যাওয়ার সমস্যায় যারা ভুগে থাকেন তাঁদের জন্য একান্ত উপযোগী এলাচের ।

পেটের রোগে এলাচের জল:
যারা বুক জ্বালা, বমি ভাব, গ্যাস, অ্যাসিডিটি কিংবা বদহজমের মতো সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্যও কার্যকরী এলাচের জল। একইসাথে কোষ্ঠকাঠিন্যের হাত থেকে মুক্তি পেতেও উপযোগী এলাচ।

অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে এলাচের জল:
এলাচের জলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্টস, যা শরীর থেকে অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে দিতে সাহায্য করে। তাই দেহের অতিরিক্ত ওজন কমাতেও সাহায্য নেওয়া যায় এলাচ ভেজানো জলের।

বয়সের ছাপ দূর করতে এলাচের জল:
বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ত্বক কুঁচকে যায় এবং কমতে থাকে তার ঔজ্বল্য। ত্বককে উজ্জ্বল টানটান রাখতেও রয়েছে এলাচের ভূমিকা। এলাচ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদানে সমৃদ্ধ যা ত্বকে বয়সের ছাপ এবং বলিরেখা পড়তে বাধা দেয়।

এছাড়াও নিয়মিত এলাচ খাওয়ার অভ্যাস থাকলে মাড়ির ইনফেকশন, মুখের ভিতরের ঘা, দাঁত ও মাড়ির নানা সমস্যা থেকে আপনাকে মুক্তি মেলে । কারণ এলাচ মুখের ভিতর ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াগুলিকে ধ্বংস করে দেয়। পাশাপাশি যারা মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার সমস্যায় ভোগেন তাঁরা মুখের মধ্যে রেখে দিতে পারেন গোটা এলাচ, এতে সমস্যার হাত থেকে নিশ্চিত রেহাই মিলবে। তাছাড়াও অবশ্য উল্লেখযোগ্য যে, একাধিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে নিয়মিত এলাচ খাওয়ার অভ্যাস কিছু কিছু ক্ষেত্রে সহায়তা করে মারণ রোগ ক্যানসার প্রতিরোধেও।

Related News

Leave a Reply

Back to top button