রায়গঞ্জ

বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ ঘিরে উত্তেজনা রায়গঞ্জে, সন্ধ্যা থেকে থানা ঘেরাও বিজেপির

তৃণমূল ও বিজেপির একে অপরের বিরুদ্ধে হামলা ও গালিগালাজ করার অভিযোগ। উত্তপ্ত পরিস্থিতি রায়গঞ্জে। থানা ঘেরাও বিজেপির।

 

Bengal Live রায়গঞ্জঃ বিজেপির “আর নয় অন্যায়” কর্মসূচি চলাকালীন দলীয় কর্মীদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য রায়গঞ্জ পুরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডে। ঘটনার প্রতিবাদে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রায়গঞ্জ থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ শুরু করে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপি। এদিকে বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ, দুয়ারে সরকার কর্মসূচি চলাকালীন বিজেপির কর্মীরা তাদের উপর হামলা চালিয়েছে। অভিযোগ, পালটা অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা রায়গঞ্জে।

জানা গেছে, এদিন সন্ধ্যায় রায়গঞ্জ পুরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের শ্মশান কলোনী এলাকায় আর নয় অন্যায় ও গৃহ সম্পর্ক অভিযান কর্মসূচি চলছিল বিজেপির। সেই সময় তৃণমূল কংগ্রেসের দুয়ারে সরকার অভিযান চলছিল ওই এলাকায়। বিজেপির অভিযোগ, কর্মসূচি চলাকালীন কর্মীদের উপর তৃণমূল কংগ্রেস আশ্রিত দুষ্কৃতীরা হামলা চালায়। আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ বিজেপির। এই ঘটনার পরেই জেলা বিজেপির সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ীর নেতৃত্বে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি তুলে মিছিল করে বিজেপি। রায়গঞ্জ থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে বিজেপি নেতৃত্ব।

বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তপন দাস বলেন, বিজেপি ভাঁওতাবাজি কথা বলছে। আমাদের যুবর ছেলেরা দুয়ারে সরকার কর্মসূচির প্রচার করছিল। সেই সময় বিজেপির লোকেরা বাজে কথা বলে। সেই শুনেই আমি ঘটনাস্থলে এসে দেখি সবাই বাড়ি চলে গিয়েছে।

এদিকে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবি তুলে রায়গঞ্জ থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপি। দোষীদের গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত থানা ঘেরাও করে রাখার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী।

Related News

Leave a Reply

Back to top button