রাজ্য

বৌভাতে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় ৪ শিশু সহ ১৩ জনের মৃত্যু ধূপগুড়িতে

কুয়াশা ও ভুল পথ দিয়ে যাওয়ার কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিক অনুমান। বুধবার সকালেও দুর্ঘটনাগ্রস্থ গাড়িগুলিকে দেখার জন্য ভিড় জমিয়েছেন স্থানীয়রা।

 

Bengal Live জলপাইগুড়িঃ পাথর বোঝাই ডাম্পারের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল ১৩ জনের৷ মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য জলপাইগুড়িতে। দুর্ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে হাসপাতালে। মৃতদের মধ্যে ৪ জন শিশু, দুই পুরুষ ও ৭ জন মহিলা রয়েছেন বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। মৃতদেহ শনাক্তকরণের কাজ শুরু হয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পৌঁছেছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেও। খবর পাওয়ার পর থেকেই উদ্বিগ্ন তিনি বলে জানিয়েছেন ধূপগুড়ির বিধায়ক মিতালি রায়।

 

জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত নয়টা নাগাদ জলঢাকার লাল স্কুল এলাকায় আলিপুরদুয়ার থেকে ময়নাগুড়ি মুখী একটি পাথর বোঝাই ডাম্পারের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় তিনটি ছোট গাড়ির। ডাম্পারটি সঠিক পথ দিয়ে গেলেও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ছোট গাড়ি তিনটি ভুল পথ দিয়ে যাচ্ছিল। এদিকে প্রথম গাড়িটির সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হওয়ার পর ডাম্পারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডিভাইডারে উঠে পড়লে পাথর পড়তে শুরু করে। যার ফলে পাথর চাপা পড়ে যায় পরের দুটি গাড়িতে। বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয়রা উদ্ধারকাজ শুরু করে। খবর দেওয়া হয় ধূপগুড়ি থানার পুলিশ, দমকল বাহিনীকে। ক্রেন, জেসিবি ইত্যাদি দিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করে পুলিশ ও দমকল। কয়েকঘন্টার চেষ্টার পর দুর্ঘটনাগ্রস্থ গাড়ি থেকে ২৪ জনকে উদ্ধার করা হয়। যার মধ্যে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর।

প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক অনুমান, ওই তিনটি গাড়ি করে ময়নাগুড়ির চূড়াভান্ডার এলাকার বাসিন্দারা বৌভাতের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ময়নাতলিতে যাচ্ছিলেন। তবে এখনও পুরো বিষয়টি স্পষ্ট হয়নি। পুলিশ মৃতদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ শুরু করেছে।

এদিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকার্যে তদারকি করেন ধূপগুড়ির বিধায়ক মিতালি রায়। পরবর্তীতে ঘটনাস্থলে আসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গ্ৰামীণ), ডিএসপি ক্রাইম, ময়নাগুড়ি থানার পুলিশ সহ বিরাট পুলিশ বাহিনী।
পাথরের নীচে চাপা পড়ে যাওয়ার ফলে দুমড়ে মুচড়ে গিয়েছে ছোট তিনটি গাড়িই। রীতিমতো চ্যাপ্টা হয়ে গেছে মারুতি গাড়িটি। বুধবার সকালেও দূর্ঘটনাস্থলে ভিড় জমান স্থানীয় বাসিন্দারা। কুয়াশা এবং ভুল পথে চলার জন্যই এই দূর্ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button