লাইফ স্টাইল

বর্ষায় নষ্ট হচ্ছে রান্নাঘরের মশলাপাতি! জেনে নিন মশলা ভালো রাখার উপায়

মশলাদার খাবার ছাড়া মুখে রোচে না আপনার! কিন্তু বর্ষার এই ভেজা আবহাওয়ায় খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বয়াম ভর্তি মশলা! তাহলে আসুন জেনে নিই বয়াম বন্দী মশলা দীর্ঘদিন ভালো রাখার কিছু উপায়।

 

Bengal Live ডেস্কঃ  বাঙালি রান্নার অপরিহার্য উপকরণ মশলা। পরিমিত পরিমাণে ঠিকমতো সব মশলাপাতি রান্নায় পড়লে তবেই না তার স্বাদ খোলে! কিন্তু বর্ষাকালের ভেজা আবহাওয়ায় খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায় বয়াম ভর্তি মশলা। বিশেষ করে গুড়ো মশলা এই সময়ে আরও দ্রুত নষ্ট হয়। তবে কিছু ছোটোখাটো সাবধানতা মেনে চললেই শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা সব ঋতুতেই দীর্ঘদিন ভালো রাখা যায় বয়াম বন্দী মশলার স্বাদ গন্ধ দু’টোই। চলুন দেখে নেওয়া যাক মশলা ভালো রাখার কিছু উপায়-

দীর্ঘদিন মশলা ভাল রাখতে হলে অবশ্যই ব্যবহার করুন এয়ারটাইট পাত্র৷ এয়ারটাইট পাত্র বা কৌটোয় রাখা হলে মশলার ঘনত্ব নষ্ট করতে পারে না বাতাসের আর্দ্রতা, ফলে বর্ষাকালেও মশলা ভাল থাকে।

মিটবে ডার্কসার্কল ও অ্যাকনে সহ ত্বকের অন্যান্য সমস্যা, জানুন পুদিনার ভেষজ গুণ!

সম্ভব হলে প্রতি মশলায় আলাদা চামচ ব্যবহার করুন। বয়াম থেকে যে চামচ দিয়ে মশলা তুলবেন, তা যেন পরিষ্কার ও শুকনো হয়। কোনও অবস্থাতেই ভিজে চামচ দিয়ে মশলা তুলবেন না, এর ফলে মশলা শক্ত ডেলায় পরিণত হবে।

আমরা সাধারনত গ্যাসের ওভেনের কাছেই কোনও শেল্ফে মশলার কৌটো সাজিয়ে রাখি, যাতে তাড়াহুড়োর সময় তা সহজেই হাতের কাছে মেলে। কিন্তু এর ফলে আগুনের তাপে মশলার গন্ধ ও ঝাঁঝ নষ্ট হয়ে যায়৷ তাই মশলা ভাল রাখতে তা আগুনের তাপ থেকে দূরে রান্নাঘরের দেরাজে বা কাঠের তৈরি রসুই-আলমারির ভিতের রাখুন ৷

সাদা নুনের বদলে খান বিট নুন , কমবে কোষ্ঠকাঠিন্য সহ একাধিক রোগ

বাটা মশলা ফ্রিজে সংরক্ষণ করে রাখা যেতেই পারে৷ তবে অনেকের প্রবণতা থাকে গুড়ো মশলার বয়ামও ফ্রিজে রাখার। কিন্তু এর ফলে ফ্রিজের ভিতরের আর্দ্রতার প্রভাবে মশলার স্বাদ ও গন্ধ খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়। তাই শুকনো বা গুড়ো মশলা কখনই ফ্রিজে রাখবেন না ৷

গোটা মশলা যেমন জিরা, ধনে, গোলমরিচ ইত্যাদি মজুত করার আগে হালকা তাপে শুকনো কড়ায় ভেজে নিয়ে ঠান্ডা করে কৌটায় রাখুন। এতে অনেক দিন গন্ধ ভালো থাকে।

মাথা ব্যথা কমাতে ওষুধ নয়, ভরসা রাখুন ঘরোয়া উপায়ে

কারিপাতা ও পুদিনাপাতা কয়েক দিন ঘরে বা ফ্রিজে রাখলে পচে যায় বা শুকিয়ে যায়। এই পাতা শুকিয়ে গুড়ো করে এয়ারটাইট কৌটোয় ভরে রাখুন। আর পচে বা শুকিয়ে যাওয়ার চিন্তা ছাড়াই ব্যবহার করুন দীর্ঘদিন।

Leave a Reply

Back to top button