রাজ্য

‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’ জেনে নিন আবেদনের খুঁটিনাটি

বাংলার ২৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী মহিলারা ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’ প্রকল্পের মাধ্যমে পাবেন মাসিক ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা। ‘স্বাস্থ্য সাথী’ র কার্ডের ডেটাবেইস অনুয়ায়ী হবে এই প্রকল্পের নাম নথিভুক্তকরণ।

 

Bengal Live ডেস্কঃ  ২০২১ এর বিধানসভা ভোটের আগেই ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’- প্রকল্পের ঘোষণা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের গৃহবধূদের আর্থিকভাবে স্বনির্ভর করে তুলতেই তার এই প্রকল্প, আর ভোটে জেতার পরই সেই প্রকল্প রূপায়নে তৎপর হয়ে উঠেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মন্ত্রিসভায় এই প্রস্তাব গৃহীত হওয়ার পরই মুখ্যমন্ত্রী জানান, ১৬ অগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর চলবে ‘দুয়ারে সরকার’, এখানে দরখাস্ত নিয়ে গেলে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত হবে।

এবং নাম নথিভু্ক্তকরণের পর ২৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী বাংলার মহিলারা ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’ প্রকল্পের সুবিধা পেতে শুরু করবেন ১ সেপ্টেম্বর থেকেই। এই প্রকল্পে জাতিগত সংরক্ষণের আওতাভুক্ত তপশিলী জাতি ও উপজাতি পরিবারের মহিলারা পাবেন প্রতি মাসে ১০০০ টাকা এবং সংরক্ষণের আওতার বাইরের মহিলারা পাবেন মাসিক ৫০০ টাকা করে।

এবার জেনে নেওয়া যাক লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদনের খুঁটিনাটিঃ

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদন করতে হবে অফলাইনে। এই প্রকল্পের লাভ নিতে গেলে করতে হবে দরখাস্ত। আর দরখাস্ত করার জন্য প্রয়োজনীয় ফর্ম পাওয়া যাবে রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে সরকারের’ ক্যাম্পে। এলাকাভিত্তিক এই ক্যাম্প চলবে ১৬ অগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর অবধি।

ত্বকের জেল্লা বাড়াতে দারুণ কার্যকরী মালাই, জানুন বিশদে

লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনের জন্য যেসব নথি অবশ্য প্রয়োজনীয় সেগুলি হল আধার কার্ড জেরক্স, ভোটার কার্ড জেরক্স, রেশন কার্ড জেরক্স, জাতিগত শংসাপত্র (এসসি এসটি ওবিসি), ব্যাঙ্ক পাশবই এর জেরক্স, পাসপোর্ট সাইজ ছবি, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড এবং মোবাইল নম্বর। রাজ্য সরকারের আরেক প্রকল্প ‘স্বাস্থ্য সাথী’ র কার্ডের ডেটাবেইস অনুয়ায়ীই এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করা হবে।

Related News

Leave a Reply

Back to top button