রাজ্য

বন্যায় ক্ষতিপূরণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ, তৃণমূল নেতাকে গণধোলাই

দুর্নীতির হয়েছে মেনে নিয়েছেন অভিযুক্ত। তবে তিনি এরমধ্যে জড়িত নেই বলেই দাবি।

 

Bengal Live মালদাঃ ভুয়ো ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে তৃণমূল নেতাকে গণ ধোলাই। পুলিশের সামনেই গণপিটুনির শিকার ওই নেতা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের বরোই গ্ৰাম পঞ্চায়েতের চোপালমোড় এলাকায়।আক্রান্ত তৃণমূল নেতার নাম কুনাল কান্তি দাস। খবর পেয়ে ছুটে আসে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়ে পুলিশ।পুলিশের গাড়ি ঘিরেও বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাসীরা।

জানা গেছে, ২০১৭ সালে বন্যা ত্রাণের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে বরোই গ্ৰাম পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধে।ইতিমধ্যেই তার তদন্ত শুরু হয়েছে। সেই তদন্তে উঠে এসেছে এক ব্যক্তির নামে একাধিক এ্যাকাউন্ট খুলে টাকা আত্মসাৎ করেছেন স্থানীয় গ্ৰাম পঞ্চায়েতের মহিলা সদস্যের স্বামী কুনাল কান্তি দাস। বেশ কিছু দিন গা ঢাকা দিয়ে থাকার পরে বৃহস্পতিবার তিনি রাস্তায় বেরোতেই তাঁকে ঘিরে ধরে আটকে রেখে গণ ধোলাই শুরু হয়। পুলিশ উদ্ধারে গেলে পুলিশের সঙ্গেও হাতাহাতি হয়। গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

তৃণমূল নেতা কুনাল কান্তি দাসকে আটক করে নিয়ে যায় হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। এদিকে এই ঘটনায় বিজেপি, তৃণমূল পঞ্চায়েতের দুর্নীতি নিয়ে কটাক্ষের সুর চড়িয়েছে। পালটা আক্রমণ শানিয়েছে তৃণমূল। স্থানীয় তৃণমূল নেতা মানিক দাস বলেন, ২০১৭ সালে কংগ্রেসের বোর্ড ছিল। সেই সময় এই দুর্নীতি হয়েছে। এখন সেই দায় আমাদের উপর পড়ছে৷ তদন্ত চলছে। এর থেকে বেশি কিছু বলার নেই। এদিকে দুর্নীতি হয়েছে বলে মেনে নিয়েছেন অভিযুক্ত কুনাল কান্তি দাস। তবে তিনি এইসবের মধ্যে যুক্ত নেই বলে দাবি করেন।

Related News

Leave a Reply

Back to top button