জাতীয়

ভারতে নিষিদ্ধ হচ্ছে প্লাস্টিক, বাতিলের তালিকায় আইসক্রিমের কাঠি থেকে সিগারেটের প্যাকেট

৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ব্যবহার করা যাবে না ৭৫ মাইক্রনের কম ঘনত্বযুক্ত পলিথিনের ব্যাগ। নিষিদ্ধ হচ্ছে পলিথিন তৈরি, আমদানি, মজুত এবং বিতরণ।

 

Bengal Live ডেস্কঃ  দীর্ঘদিন ধরেই প্লাস্টিক ব্যবহারের উপরে সরকারী তরফে আরোপ করা হয়েছিল নানাবিধ শর্ত। এবার কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে পলিথিনের ব্যবহারের পাশাপাশি পলিথিন তৈরি, আমদানি, মজুত, বিতরণ, বিক্রিও নিষিদ্ধ করা হচ্ছে ।

৫০ মাইক্রন ঘনত্ব যুক্ত পলিথিনের ব্যবহার দেশে নিষিদ্ধ হয়েছিল আগেই। এবার পরিবেশ মন্ত্রক নিষিদ্ধ করতে চলেছে একবার ব্যবহারযোগ্য পলিথিনের ব্যাগ সহ অন্যান্য সামগ্রী। যাতে প্লাস্টিকের পুরুত্ব বৃদ্ধি পায় এবং বহন ক্ষমতা বাড়ে। সর্বোপরি সেগুলো পুনরায় ব্যবহার করা যেতে পারে। চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ৭৫ মাইক্রন এবং পরের বছর থেকে ১২০ মাইক্রনের কম ঘনত্ব যুক্ত পলিথিনের ব্যাগ ব্যবহার করা যাবে না বলে জানিয়েছে মন্ত্রক ।

ছকে বাঁধা জীবনে বানিয়ে ফেলুন যোগ ব্যায়ামের রুটিন। জেনে নিন কোনটা কখন করবেন আর কোনটা করবেন না

চতুর্থ জাতিসংঘের পরিবেশ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৯ সালে। সেখানে প্লাস্টিক পণ্যে দূষণের মোকাবিলা করতে দেশে ২০২২ সালের মধ্যে প্লাস্টিকের ব্যবহার রুখতে প্রস্তাব পেশ করা হয়। সে কথা মাথায় রেখে এবার শুধু পলিথিনের ব্যাগ ব্যবহারের ক্ষেত্রেই নয়, বিধিনিষেধ আরোপ হতে চলেছে পলিথিন তৈরি, আমদানি, মজুত এবং বিতরণের উপরও। কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রক ২০২১ সালের প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সংশোধনী আইন অনুয়ায়ী বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে, ২০২২ সালের ১ জুলাই থেকে পলিথিনের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি পলিথিন তৈরি, আমদানি, মজুত, বিতরণ এবং বিক্রিরও অনুমতি থাকছে না।

প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি যেসব সামগ্রী নিষিদ্ধ হতে চলেছে তা হল- প্লাস্টিকের কাঠি, প্লাস্টিকের তৈরি পতাকা, আইসক্রিমের কাঠি, ক্যান্ডি বা ললিপপের কাঠি, বেলুনের জন্য ব্যবহৃত প্লাস্টিকের কাঠি, কান পরিষ্কার করার কাঠি, প্রসাধনের জন্য পলিস্টারিন, প্রভৃতি। এছাড়াও এই তালিকায় রয়েছে প্লাস্টিকের কাপ, প্লেট, প্লাস্টিকের কাঁটা চামচ, ছুরি, চশমা, ট্রে, প্যাকিং ফিল্ম, মিষ্টির বাক্স, নিমন্ত্রণ কার্ড, সিগারেটের প্যাকেট বা ১০০ মাইক্রনের কম চওড়া পিভিসি ব্যানার ইত্যাদি।

বর্ষায় নষ্ট হচ্ছে রান্নাঘরের মশলাপাতি! জেনে নিন মশলা ভালো রাখার উপায়

যদিও নিষিদ্ধ এই সামগ্রী তালিকার বেশ কিছুর বিকল্প এখনও সুলভ নয়। তবে সরকারী তরফে জানানো হয়েছে, কিছু কিছু প্লাস্টিক সামগ্রীর বিকল্প ইতিমধ্যেই বাজারে চলে এসেছে ।আর বাকি যা রয়েছে সেগুলিও খুব শীঘ্রই পাওয়া যাবে। এবং প্লাস্টিকের সেসমস্ত বিকল্প সামগ্রীগুলিকে উৎপাদনকারী সংস্থাগুলির প্রচার করবে সরকার।

Related News

Leave a Reply

Back to top button